একুশের ভোটের আগে অবশেষে তৃণমূলকে স্বস্তি দিলেন সাংসদ শতাব্দী রায়। দলের প্রতি তাঁর আস্থা ও বিশ্বাস আছে বলে জানালেন তিনি। শনিবার ফেসবুকে পোস্টে তেমনই ইঙ্গিত দিয়েছেন বীরভূমের সাংসদ। শুধু তাই নয়, দলত্যাগ না করে তাঁর পরিস্থিতি যে ইতিবাচক। ফেসবুকে তাও জানালেন তিনি। পাশাপাশি, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্য়ায় ও কুণাল ঘোষকে তাঁর আস্থার কথা জানিয়েছেন তৃণমূল সাংসদ।

আরও পড়ুন-'সবাইকে ব্যবহার করে ছুঁড়ে ফেলেছেন তৃণমূল নেত্রী', চন্দ্রকোনার সভা থেকে ফের তোপ শুভেন্দুর

শনিবার ফেসবুক পোস্টে তৃণমূল সাংসদ লেখেন, ''আমাকে কেন রাজনৈতিক কর্মসূচিতে দেখা যাচ্ছে না। এই নিয়ে আমাকে অনেকে প্রশ্ন করেছিলেন। অথচ, আমি চেয়েছিলাম সাধারণ মানুষের পাশে থাকতে। কিছু সমস্যা হচ্ছে। তা নিয়ে যন্ত্রণাও অনূভব করেছিলাম। চেষ্টা করছি সব বাধা পেরিয়ে দলের পাশে সবসময় থাকার''। অভিষেকের সঙ্গে বৈঠকের পর সেই যন্ত্রণা আগের তুলনায় অনকেটাই প্রশমিত হয়েছে বলে ফেসবুকে পোস্টে এমনি ইঙ্গিত দিয়েছেন বীরভূমের সাংসদ। বীরভূমবাসীদের কাছে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেছেন তিনি। 

আরও পড়ুন-মাটির তলায় 'পাতালঘর' থেকেই মাদকের কারবার, অভিযান চালাতে গিয়ে চোখ কপালে উঠল পুলিশের

ফেসবুকে তিনি আরও লেখেন, ''আমার বিষয়টি ফেসবুকের মাধ্যমে জানিয়েছিলাম আপনাদের। এই সূ্ত্রেই কিছু বহুমুখী ঘটনাও ঘটেছিল। শেষ পর্যন্ত তৃণমূল পরিবারের প্রিয় নেতা সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্য়ায়ের সঙ্গে আমার সবিস্তারে আলোচনা হয়েছে। আমি আমার সমস্য়ার কথা জানিয়েছি। তিনিও আমার কথা শুনেছেন এবং আমাদের মধ্যে আলোচনাও হয়েছে। এই আলোচনা ইতিবাচক, সমস্য়ার সমাধান হবে বলে আমি আশাবাদী''। প্রসঙ্গত, অভিষেকের সঙ্গে বৈঠকের পর শনিবার দিল্লি যাওয়ার কথা বাতিল করেছেন শতাব্দী। আগামী বুধবার সপরিবারে ছুটি কাটাতে গোয়া যাচ্ছেন বলে সূত্রের খবর।