আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে রায়গঞ্জ আসনের তৃণমুল কংগ্রেসের প্রার্থী তথা তৃণমূল কংগ্রেসের জেলা সভাপতি কানাইয়ালাল আগরওয়ালার এক মন্তব্যে শুক্রবার রাত থেকে জেলার রাজনৈতিক মহলে ব্যাপক চর্চা শুরু হয়েছে।

আরও পড়ুন, আজ রাজ্যে হেভিওয়েট ৩, তারকেশ্বরে মুখোমুখি মোদী-মমতা, প্রচারে সামিল যোগীও 


  উত্তর দিনাজপুর তৃণমুল কংগ্রস সভাপতি তথা রায়গঞ্জ বিধানসভার তৃণমুল প্রার্থী কানাইয়ালাল আগরওয়ালা প্রেসক্লাবে অনুষ্ঠিত এক সাংবাদিক সম্মেলনে জানিয়েছেন,  জয়লাভ করলে পরিস্থিতির প্রেক্ষিতে রায়গঞ্জবাসীর সঙ্গে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেবেন।  যেই প্রক্রিয়ায় ইসলামপুরে কংগ্রেস দল থেকে তিনি তৃণমুলে এসেছিলেন। বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলি তার এই বক্তব্যকে হাতিয়ার করেই প্রচার শুরু করেছে। পরিস্থিতির সামাল দিতে শুক্রবার রাতে তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে কানাইয়ালাল আগরওয়ালার অবস্থান জানিয়ে আরেকটি ভিডিও  বক্তব্য রিলিজ করা হয়েছে। মনোনয়নপত্র জমা দেবার পর্ব মিটে যাওয়ার পর শুক্রবার উত্তর দিনাজপুর প্রেসক্লাবে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়েছিলেন  রায়গঞ্জের তৃণমুল কংগ্রেস প্রার্থী কানাইয়ালাল আগরওয়ালা। 

আরও পড়ুন, কেন্দ্রীয় বাহিনীর কর্মকাণ্ডে ক্ষোভ, তৃণমূলের অভিযোগ পেয়ে ডানা ছাঁটল কমিশন 


প্রসঙ্গত সেই সাংবাদিক সম্মেলনে  তাকে প্রশ্ন করা হয় , ২০১৬ সালে কংগ্রসের টিকিটে জিতে  উন্নয়নের স্বার্থে তৃণমুল কংগ্রসে চলে যান। আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে  যদি রায়গঞ্জে তার জয় হওয়ার পাশাপাশি রাজ্যে সরকার অন্যদলের হয়, সেক্ষেত্রে আপনি উন্নয়নের জন্য তিনি কি করবেন, এই প্রশ্নের উত্তরে কানাইয়ালাল জানিয়েছেন, ' এইরকম পরিস্থিতি যদি আসে তবে সেই ক্ষেত্রে ইসলামপুরের বাসিন্দাদের কথা শুনে যেমন দলবদলের সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম, ঠিক সেইভাবেই রায়গঞ্জের মানুষের কথাশুনেই পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেব। যারা আমাকে ভোট দিয়ে জেতাবেন, তাদের সঙ্গে আলোচনা করেই আমি সিদ্ধান্ত নেব।তবে এই পরিস্থিতি তৈরি হবে না বলেই আমার বিশ্বাস।' কানাইয়ালাল বাবুর এই কথাতে ইতিমধ্যেই রায়গঞ্জের রাজনৈতিক মহলে আলোচনার ঝড় উঠেছে। বিজেপির প্রার্থী কৃষ্ণ কল্যানী জানিয়েছেন, ' এই নির্বাচনে তৃণমুল কংগ্রেস যে ক্ষমতায় ফিরবে না, জেলা সভাপতির এই উক্তি থেকেই তা পরিস্কার। তিনি জিতে গেলে দলবদলের রাস্তা খোলা রাখার চেষ্টা করছেন। কিন্তু মানুষ তাকে সেই সুযোগ দেবে না। '

আরও পড়ুন, কেন্দ্রীয় বাহিনীর কর্মকাণ্ডে ক্ষোভ, তৃণমূলের অভিযোগ পেয়ে ডানা ছাঁটল কমিশন  

 

রায়গঞ্জ আসনের সংযুক্ত মোর্চার প্রার্থী তথা জেলা কংগ্রেস সভাপতি  মোহিত সেনগুপ্ত জানিয়েছেন,' কানাইয়ালাল আগরওয়ালা সম্পূর্ণ মিথ্যে কথা বলছেন।২০১৬ সালে ইসলামপুর থেকে কংগ্রেসের টিকিটে জিতে নিজের পদ, ক্ষমতা ও অর্থের লোভে তিনি দলবদল করে তৃনমুল কংগ্রেসে গিয়েছিলেন। ইসলামপুরের সাধারণ মানুষের মতামতকে তিনি নূন্যতম সন্মান দেখান নি।এবারও ওই একই প্ল্যান করেছে। এলাকার উন্নয়ন সম্পূর্ণ ভাওতা।নিজের আর্থিক উন্নতির জন্যই এই পরিকল্পনা। তবে সেই আশ তার পূরণ হবে না।মানুষ এই কেন্দ্রে এই ধরনের কাটমানিখোর, পরিযায়ীকে প্রত্যাখ্যান করবে।' বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলি তৃনমুল কংগ্রেসের জেলা সভাপতির এই বক্তব্যকে হাতিয়ার করে প্রচার শুরু করতেই ড্যামেজ কন্ট্রোলে নামে তারা।কানাইয়ালাল আগরওয়ালা যে কোনও পরিস্থিতিতে তৃণমূল কংগ্রেসেই থাকবেন জানিয়ে একটি ভিডিও দলের পক্ষ থেকে রিলিজ করা হয়েছে।