'ভোট লুটে তৃণমূলের বাঁধা হতে পারে উপ নির্বাচন কমিশনার সুদীপ জৈন',বিস্ফোরক প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরী। শুক্রবার এক জরুরী কালীন সাংবাদিক বৈঠকে বহরমপুরে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে রাজ্যের উপ নির্বাচন কমিশনার সুদীপ জৈন ও শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের দ্বৈরথ নিয়ে চাঞ্চল্যকর উক্তি করলেন তিনি। 

 

 

আরও পড়ুন, 'নন্দীগ্রাম থেকে আমিই লড়ব', শুভেন্দুর চ্যালেঞ্জের কথা মনে পড়েই কি গর্জে উঠলেন মমতা 

শুরুতেই অধীর বাবু বলেন,' তৃণমূলের ভোট লুট এর ক্ষেত্রে আসন্ন নির্বাচনে রাজ্যের উপ নির্বাচন কমিশনার সুদীপ জইন বাঁধা হয়ে দাঁড়াতে পারে, আর সেই জন্যেই তাকে যেনতেন প্রকারে দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দিতে ষড়যন্ত্র শুরু করেছে তৃণমূল। পাশাপাশি তিনি এই নির্বাচন কমিশনারের পক্ষে সমর্থন জানিয়ে আরও পরিষ্কার করে দেন, কংগ্রেসের তরফে নির্বাচন কমিশনের আচরণ নিয়ে কোনো অভিযোগ নেই।' এরকম একাধিক চাঞ্চল্যকর মন্তব্য করলেন এদিন অধীর চৌধুরি।

আরও পড়ুন, 'সাংসদরা সম্মান না পাওয়াতেই দল ছাড়ছেন', তৃণমূলের প্রার্থী ঘোষণার দিনেই বিস্ফোরক শতাব্দী 

 

 

প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার বাংলার বিধানসভা ভোটের দায়িত্বে থাকা উপনির্বাচন কমিশনার সুদীপ জৈনকে তাঁর পদ থেকে সরানোর দাবি তুলেছে তৃণমূল কংগ্রেস। তৃণমূল কংগ্রেস সাংসদ সৌগত রায় সাংবাদিক সম্মেলনে জানিয়েছেন, তাঁদের রাজ্যসভার সাংসদ ডেরেক ও'ব্রায়ন সুদীপ জৈনের বিরুদ্ধে পক্ষপাতদুষ্টতার অভিযোগ তুলে একটি চিঠি পাঠিয়েছেন রাজ্যের মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিককে। সৌগত রায়ের অভিযোগ, সুদীপ জৈন রাজ্য পুলিশকে এড়িয়ে কাজ করছেন। তারপরই তিনি আরও একবার রাজ্যে আট দফা ভোটের প্রসঙ্গ তোলেন। আর একই সঙ্গে বাংলার নির্বাচনের দায়িত্বে থাকা সুদীপ জৈনের অপসারণের দাবিতে সরব হন তিনি।