ভোটের আগে জনমানসে সাফল্য পেয়েছে রাজ্য সরকারের দুয়ারে সরকার কর্মসূচি। এই মাধ্যমে সাধারণ মানুষকে পরিষেবা দিতে স্বাস্থ্যবীমার কার্ডও বিলি করেছে সরকার। কিন্তু, বেসরকারি হাসপাতালের সঙ্গে রোগীর আত্মীয়দের চিকিৎসা পরিষেবা নিয়ে জট তৈরি হয়েছিল। অবশেষে সেই জট কাটতে চলেছে বলে মনে করছেন স্বাস্থ্য আধিকারিকরা। 

আরও পড়ুন-'নির্লজ্জতার কোনও সীমা নেই', বিনামূল্যে ভ্যাকসিন দেওয়া নিয়ে মমতাকে আক্রমণ মালব্য়ের

সাধারণ মানুষকে স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পের সুবিধা বেসরকারি হাসপাতাল থেকে পরিষেবা পেতে বৈঠক করেন রাজ্যের মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্য়ায়। নবান্নের সভা ঘরে সেই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন বেশ কয়েকটি হাসপাতালের প্রতিনিধিরা। সেই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্যসচিব নারায়ণ স্বরূপ সহ অন্যান্যরা। এদিনের আলোচনায় ঠিক হয়েছে, সরকার দ্রুত বেসরকারি হাসপাতাল গুলিকে স্বাস্থ্যবীমার টাকা পৌঁছে দেবে। স্বাস্থ্যসাথীর কার্ড নিয়ে এলে কোনও রোগীকে যেন ফেরত না পাঠানো হয়।

আরও পড়ুন-হোমের কিশোরীকে সেফটিপিন ফুটিয়ে অত্যাচার, মিথ্যাচারের অভিযোগে মমতাকে তোপ অগ্নিমিত্রার

পাশাপাশি, বৈঠকে আরও ঠিক হয়েছে যে, এবার থেকে বেসরকারি হাসপাতালগুলিতে থাকবে স্বাস্থ্যসাথীর পৃথক ডেস্ক। স্বাস্থ্যসাথীর কার্ড হোল্ডাররা সেই কার্ড নিয়ে ওই আলাদা কাউন্টারে যোগাযোগ করতে পারবেন। আরও বেশি সংখ্যক বেসরকারি হাসপাতাল যেন এই স্বাস্থ্যসাথীর আওতায় আসে সেজন্য তাঁদের দ্রুত এনরোমেন্ট করানোর পরামর্শ দেওয়া হয়। এর ফলে বাংলায় রোগী পরিষেবা আরও উন্নত হবে।