টালিগঞ্জের এক ঝাঁক অভিনেতা অভিনেত্রী, পরিচালক, প্রযোজক যোগ দিয়েছিলেন তৃণমূল কংগ্রেসে। এবার সেই পথ ধরলেন সাঁওতালি অভিনেত্রী বীরবাহা হাঁসদা। বুধবার শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের হাত ধরে তিনিও যোগ দিলেন তৃণমূল কংগ্রেসে। হাতে তুলে নিলেন ঘাসফুল পাতাকা। 

সাঁওতালি সিনেমার জনপ্রিয় অভিনেত্রী বীরবাহা হাঁসদা। আদিবাদী সংস্কৃতিক্ষেত্রে তিনি রীতিমত পরিচিত মুখ। রাজনীতিতেই নিতান্তই নতুন নন তিনি। তাঁর মা চুনিবালা হাঁসদা দীর্ঘ দিনের ঝাড়খণ্ড পার্টির নেত্রী। ২০১৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনে ঝাড়গ্রামের বীনপুর থেকে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করেছিলেন তিনি। কিন্তু সেবার তাঁর জামানত জব্দ হয়েছিল। সিপিএম প্রার্থী দেবলীনা হেমব্রমের কাছে তেমন সুবিধে করে উঠতে পারেননি তিনি। লোকসভা নির্বাচনেও ঝাড়খণ্ড পার্টি পাতাকা নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করেছিলেন তিনি। তবে সেবারও হারতে হয়েছিল তাঁকে। তবে সাঁওতালি সিনেমায় তাঁর জনপ্রিয়তায় মোটেও আঁচ পড়েনি। তাঁর এই জনপ্রিয়তাকেই হাতিয়ার করতে চায় তৃণমূল কংগ্রেস। তেমনই মনে করছে রাজনৈতিক মহল। 


তৃণমূল কংগ্রেসের পতাকা হাতে তুলে নিয়ে বীরবাহা হাঁসদা জানিয়েছেন, অনেক দিন ধরেই মানুষের জন্য কাজ করার ইচ্ছে ছিল তাঁর। কিন্তু তেমন সুযোগ পাচ্ছিলেন না। তৃণমূল কংগ্রেসের মঞ্চটা পেয়ে তিনি মানুষের সেবা করতে পারবেন বলেও আশা প্রকাশ করেছেন সাঁতালি মহানায়িকা। সূত্রের খবর জঙ্গলমহলের হারানো ভোট ফিরে পেতে বীরবাহার জনপ্রিয়তাকে তৃণমূল কংগ্রেস হাতিয়ার করতে চলেছে।