ভোট দিয়ে আর বাড়ি ফেরা হল না গোঘাটের তৃণমূলের বুথ সভাপতি সুনীল রায়ের। প্রবীন ওই নেতার বয়স হয়েছিল ৭২ বছর। মঙ্গলবার ছিল, পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনের তৃতীয় দফার ভোটগ্রহণ। ভোট দিয়ে বাড়ি ফেরার সময়ই রহস্যজনকভাবে মৃত্যু হয় তাঁর। বিজেপি কর্মীরা তাঁকে ধাক্কা মেরে ফেলে দেন। আর তাতেই মৃত্যু হয়েছে তাঁর,  বলে অভিযোগ তৃণমূল কংগ্রেসের। যদিও ধাক্কা দেওয়ার অভিযোগ অস্বীকার করেছে গেরুয়া শিবির।

সুনীল রায়ের বাড়ি গোঘাটের ফলুই এলাকায়। তৃণমূল কংগ্রেসের দাবি, তাদের বুথ সভাপতি এদিন ভোট দিয়ে বাড়ি ফেরার সময়, বিজেপি-র কর্মীরা তাঁকে ধাক্কা মেরে ফেলে দেন। পড়ে গিয়ে গুরুতর আঘাত পেয়েছিলেন ওই নেতা। আর সেই আঘাতের জেরেই মৃত্যু হয়েছে তাঁর। পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য আরামবাগ মহকুমা হাসপাতালে পাঠিয়েছে। ময়না তদন্তের রিপোর্ট এলেই তাঁর মৃত্যুর কারণ স্পষ্ট হবে বলে জানিয়েছে তারা।

এদিন, তৃতীয় দফা নির্বাচনের সকালেই গোঘাট থেকে রাজনৈতিক হিংসার  এক ভয়াবহ অভিযোগ উঠেছিল। সোমবার রাতে খুশিগঞ্জ এলাকায় এক বিজেপি কর্মীর মায়ের রহস্যমৃত্যু হয়। তাঁর নাম মাধবী আদক। ছেলের অভিযোগ, সোমবার রাতে মত্ত অবস্থায় তাদের বাড়িতে হামলা করেছিল স্থানীয় তৃমমূল কর্মীরা। তারা ওই বিজেপি কর্মীরই খোঁজ করছিল। ছেলেকে বাঁচাতে, সে কোথায় লুকিয়ে রয়েছে, তা কিছুতেই জানাননি তাঁর মা। এরপর, ছেলেকে না পেয়ে তার মাকেই বেধড়ক মারধর করা হয়। মাটিতে ফেলে বুকে পেটে লাথি, বন্দুকের বাঁট, বাঁশ দিয়ে আঘাত করা হয় বলে অভিযোগ। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় মাধবীর।