তৃণমূল কংগ্রসের বিরুদ্ধে রীতিমত তোপ দেগেই বিজেপির মঞ্চে হাজির হলেন শুভেন্দুর বাবা তথা তৃণমূল কংগ্রেসের সাংসদ শিশির অধিকারী। পূর্ব মেদিনীপুরে তৃণমূল কংগ্রেসকে নিশ্চিহ্ন করার হুঁশিয়ারিও দিয়ে রেখেছিলেন তিনি। আর দেবেনই না বা কেন?  তাঁরা আর তাঁর ছেলে শুভেন্দুর নেতৃত্ব কাঁথি সহ পূর্ব মেদেনিপূর তৃণমূল কংগ্রেসের গড়ে পরিণত হয়েছিল। যদিও বর্তমানে নেতৃত্বের সামনের সারিতে ছিলেন শুভেন্দু। কিন্তু  তৃণমূল প্রতিষ্ঠার প্রথম দিকে শিশিরই ছিল পূর্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুরের শেষ কথা। তাই তাঁর বিজেপি যোগ দেওয়া তৃণমূল কংগ্রেস আক্ষরিক অর্থ একজন অভিভাবক হারাল বলেই মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।


তৃণমূল প্রথমসারির নেতারাও এ বিষয়ে এখনও পর্যন্ত তেমনভাবে মুখ খুলেননি। কিন্তু তৃণমূলের মুখপাত্র কুণাল ঘোষ বেশ কয়েকটি টেলিভিষণ চ্যালেনে শিশির অধিকারী ইস্যুতে কিছুটা হলেও কড়া প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন। প্রথমেই তিনি বলেন 'বিকেলে যখন প্রতিক্রিয়া দেওয়া হবে তখন যেন শিশিরবাবু পকেটে সরবিটেট রেখে দেন।'  তাঁরা এই ইস্যুতে কড়া প্রতিক্রিয়া দেবেন। তিনি বলেন একটি সময় মমতা বন্দ্যোপাধায় শিশিরবাবু ও তাঁর ছেলেদের সবরকমভাবে সহযোগিতা করেছেন। দলে তাঁকে যথাযথ মর্যাদা দিয়েছেন। তাঁকে ও তাঁর ছেলেদের বিধায়ক করেছেন সাংসদ করেছেন, পুরসভা চেয়ারম্যানও করেন। কিন্তু তারপরেও তাঁরা যেটা করলেন সেটা বিশ্বাসঘাতকতা ছাড়া আর কিছুই নয়। তিনি বলেন, 'শিশিরবাবুর অনেক বয়স হয়েছে, তিনি  বিজেপিতে যাচ্ছেন যান কিন্তু দলের বিরুদ্ধে আর কিছু কোনও কথা না বলাও শ্রেয়।'

নন্দীগ্রামের সেই খুঁটি পরীক্ষা করল ফরেন্সিক দল, যেখানে পায়ে চোট পেয়েছিলেন মমতা ...

কলকাতা থেকে রবিবার বিজেপির ইস্তেহার প্রকাশ, কী কী প্রতিশ্রুতি দেওয়া হতে পারে ..

কুণাল ঘোষ আরও বলেন যে অধিকারীর পরিবারের সঙ্গে স্বাধীনতা আন্দোলনের ইতিহাস জড়িয়ে রয়েছে। তাঁদের পরিবার একটা সময় গান্ধীজির অনুগামী ছিলেন। বর্তমানে তাঁরা কী ভাবে গান্ধীর হত্যাকারী নাথুরাম গডসের অনুগামীদের সঙ্গে হাতে হাত মিলিয়ে কাজ করছেন? ইতিহাস বলছে, বিট্রিস আমলে অবিভক্ত মেদিনীপুরে কাঁথির অধিকারী পরিবারের বসতবাড়ি ছিল স্বাধীনতা আন্দোলনের অন্যতম আখড়া। শিশির অধিকারীর বাবাকেনারাম অধিকারী সত্যাগ্রহ আন্দোলনের প্রথম সারিতে ছিলেন। আর তাঁর  কাক বিট্রিশ আমলে জেলও খেটেছিলেন। সেই সূত্র ধরেই কংগ্রেসী ঘরানায় রাজনীতি শুরু করেছিলেন শিশির অধিকারী। প্রায় আড়াই দশক আগে মমতার হাত ধরে কংগ্রেস ছেড়ে তৃণমূলের পাতাকা হাতে তুলে নিয়েছিলেন তিনি। এদিন  টেলিভিশন চ্যালেনে প্রতিক্রিয়া দেওয়ার সময় সেকথাই মনে করিয়েদেন