রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত করার কাজ চলছে জোর কদমে।  সূত্রের খবর আজই অর্থাৎ শুক্রবার তৃণমূল কংগ্রেস সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করতে পারেন। একসঙ্গে ২৯৪টি আসনেই প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করা হতে পারে। তালিকা বেশ কিছু চমক থাকবে বলেও আশা করা হচ্ছে। তৃণমূল নেতা সৌগত রায় আগেই জানিয়েছিলেন তৃণমূলের নির্বাচন কমিটি তালিকা তৈরির দায়িত্ব দিয়েছিল দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাতে। 

সূত্রের খবর প্রায় ৭৫ জন বিধায়কের নাম বাদ পড়তে পারে তালিকা থেকে। রাজ্যের বেশ কয়েকজন মন্ত্রীর কেন্দ্রও বদল হতে পারে। সূত্রের খবর ভোটে লড়বেন না রাজ্যের দুই গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রী অমিত মিত্র ও পূর্ণেন্দু বসু। অমিত মিত্রে খড়দা কেন্দ্র থেকে প্রার্থী হতে পারেন স্থানীয় পুরসভার চেয়ারম্যান কাজল সিং। আর পূর্ণেন্দু বসুর কেন্দ্র রাজারহাট-গোপালপুর থেকে প্রার্থী হতে পারেন সদ্যো তৃণমূলে যোগ দেওয়া সঙ্গীত শিল্পী অদিতি মুন্সী। বিধানসাভা নির্বাচনে নতুন মুখ আনতে বাদ দেওয়া হতে পারে ৮০ বছরের বেশি বয়স্ক বিধায়কদেরও। 
 

তৃণমূলের বেশ কয়েকজন নেতা মন্ত্রী দল বদল করে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। তাঁদের আসনগুলি রীতিমত সন্মানের লড়াই হয়ে দাঁড়িয়েছে তৃণমূলের কাছে। তাই সেদিকে তৃণমূল সুপ্রিমো বিশেষ নজর দেবেন বলেও  সূত্রের খবর। তবে এখনও পর্যন্দ রাজ্য ছাড়িয়ে দেশের নজর নন্দীগ্রাম ও ভবানীপুর কেন্দ্রে। কারণ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ভবানীপুর থেকে লড়াই করবেন বলে জানিয়েছিলেন নির্বাচনী জনসভায়। আর সেই কেন্দ্র থেকেই লড়াই করতে চান দলবদলে বিজেপিতে নাম লেখান শুভেন্দু অধিকারী। অন্যদিকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ভবানীপুরে কেন্দ্রে কে প্রার্থী হবেন তা নিয়েও যথেষ্ট জল্পনা শুরু হয়েছে রাজ্যে।