রোড শোয়ে বেরিয়ে তীব্র বিড়ম্বনায় পড়লেন শোভন-বৈশাখী। মহেশতলায় বিজেপির রোড শো করতে গেলে তাঁদের দেখানো হয়-ঝাঁটা-জুতো-কালো পতাকা। অন্যদিকে, ছি! শোভন-বৈশাখী! তোমাদের আগমনে মহেশতলাবাসী লজ্জিত।  শনিবার মহেশতলার তৃণমূল বিধায়ক দুলাল দাসকে নিশানা করেন শোভন। ঘটনাচক্রে, বিধায়ক দুলাল দাস শোভন চট্টোপাধ্য়ায়ের শ্বশুর এবং রত্না চট্টোপাধ্য়ায়ের বাবা।

আরও পড়ুন-হলদিয়ায় আসছেন প্রধানমন্ত্রী, নতুন প্রকল্পের শিলান্যাস নিয়ে বাংলায় ট্যুইট করলেন মোদী

মহেশতলায় রোড শো করতে এই ধরনের অভিজ্ঞতা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন শোভন। তিনি বলেন, ''মহেশতলায় যাদের সামনে রেখে তৃণমূল কংগ্রেস গড়েছিলাম। তাঁদের হাতেই এখন কালো পতাকা''। মহেশতলার জিজ্ঞিরাবাজার থেকে মোল্লার গেট মোড় পর্যন্ত রোড শো হয়। সেখানে বিজেপির কর্মী সমর্থকদের উন্মাদনা ছিল চোখে পড়ার মতো। রাস্তার দুপাশে ভিড় থাকলেও, কিছুক্ষণের মধ্যে বদলে যায় গোটা পরিস্থিতি। এই ঘটনার জেরে তীব্র অস্বস্তিতে পড়েন শোভন। তাঁদের লক্ষ্য করে চলতে থাকে বিক্ষোভ আর স্লোগান।

আরও পড়ুন-শোভন-বৈশাখীর বিরুদ্ধে মামলা গড়াল আদালতে, মানহানির মামলা করলেন দেবশ্রী রায়

শ্বশুরবাড়ির এলাকায় গিয়ে কালো পতাকা-বিক্ষোভের নেপথ্যে তৃণমূলের হাত রয়েছে বলে অভিযোগ করেন শোভন। গোটা রোড শো জুড়ে বিক্ষোভের মাঝেই, মহেশতলার পুরনো ডাকঘর এলাকায় জনসভা করেন শোভন। সেখান থেকে তিনি বলেন, ''তৃণমূলের লালবাতি জ্বলে গিয়েছে। যাঁদের সামনে রেখে তৃণমূল গড়েছিলাম। এখন তাঁদের হাতেই কালো পতাকা''।