রাজ্য রাজনীতিতে চড়ছে উত্তেজনার পারদ। রাজ্য বিজেপির শোভন-বৈশাখীর জুটির বিরুদ্ধে আদালত পর্যন্ত গড়াল মামলা। বাংলায় বিধানসভা ভোটের আগে শাসক-বিরোধী দলের তরজা অব্যাহত। তৃণমূল থেকে বিজেপিতে আসা শোভন চট্টোপাধ্য়ায় ও তাঁকর বান্ধবীর বিরুদ্ধে মামলা হল আদালতে। অপমান সহ্য করতে করতে ধৈর্যের সীমা পার হয়ে গিয়েছে বলে তাঁদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করলেন অভিনেত্রী-বিধায়ক দেবশ্রী রায়। 

আরও পড়ুন-৫টি পয়েন্ট দিয়ে অধিকারী পরিবারকে খোঁচা অভিষেকের, ৫০ হাজার ভোটে শুভেন্দুকে হারানোর চ্যালেঞ্জ

একুশের নবান্ন দখলের লড়াইয়ের ময়দানে এবার সজোরে বোমা ফাটালেন রায়দিঘির সাংসদ দেবশ্রী রায়। শোভন চট্টোপাধ্য়ায় ও বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্য়ায়ের বিরুদ্ধে মামলা করেন তিনি। শনিবার আলিপুর আদালত চত্বরে দাঁড়িয়ে বিজেপির দুই নেতার বিরুদ্ধে বড়সড় অভিযোগ আনেন দেবশ্রী রায়। তাঁর অভিযোগ, ''রায়দিঘিতে গিয়ে ওনারা যা বলেছেন তা , মেনে নেওয়া যায় না। অনেক দিন ধরে ওঁরা আমাকে অপমান করছে।  আমি একজন শিল্পী, তাই গোটা দেশ আনমাকে চেনে।  আমি এতদিন কিছু বলিনি। ধৈর্যের সীমা পার হয়ে গিয়েছে''।

আরও পড়ুন-আগামী ১১ ফেব্রুয়ারি ঠাকুরনগরে অমিত শাহের সভা, দিনক্ষণ ঘোষণা করলেন শান্তনু ঠাকুর

গত ২১ জানুয়ারি রায়দিঘিতে সভা করেছিলেন শোভন-বৈশাখী। সেই জনসভা থেকে তৃণমূল বিধায়ক দেবশ্রী রায়কে তীব্র কটাক্ষ করেন তাঁরা। নাম না করে টোটো কেলেঙ্কারি নিয়ে দেবশ্রীকে আক্রমণ করেন শোভন। দেবশ্রীকে ২০১৬-র নির্বাচনে জেতানোর জন্য  রায়দিঘির বাসিন্দাদের কাছে ক্ষমা চেয়ে নেন শোভন। দেবশ্রীকে 'অযোগ্য-বিধায়িকা' বলেও আক্রমণ করেন শোভন।