'ভালচার-কালচার' বা 'শকুনের সংস্কৃতি'র র পরিচয় দিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। ক্ষুদ্র রাজনৈতিক স্বার্থসিদ্ধির জন্য তারা শকুনের মতো মৃতদেহ খুঁজে বেরাচ্ছে। এর জন্য তৃণমূল কংগ্রেস দলের লজ্জা পাওয়া উচিত। - পঞ্চম দফা নির্বাচনের আগে ফের এক অডিও ক্লিপ নিয়ে সরগরম রাজ্য রাজনীতি। আর সেই অডিও ক্লিপের পরিপ্রেক্ষিতে টুইট করে এই ভাষাতেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দলকে তীব্র আক্রমণ করলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা।

চতুর্থ দফা নির্বাচনের দিন কোচবিহারের শীতলকুচির একটি বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানদের গুলিতে প্রাণ গিয়েছিল ৪ ব্যক্তির। সেই নিয়ে পঞ্চম দফা নির্বাচনের  সময়ও বাদানুবাদ চলছে। শীতলকুচিরই এক সভা থেকে সিআরপিএফ দওয়ানদের ঘেরাও করার কথা বলে কমিশনের শাস্তি পেয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়। আবার শীতলকুচির ঘটনা নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্যের জেরে শাস্তি পেয়েছেন বিজেপির রাহুল সিনহা, সায়ন্তন বসু, দিলীপ ঘোষরা। এরমধ্যেই শীতলকুচির ঘটনার পর তৃণমূলের কোচবিহার জেলা সভাপতি তথা শীতলকুচির তৃণমূল প্রার্থী পার্থপ্রতীম রায়ের কথোপকথনের রেকর্জ হলে দাবি করে একটি অডিও ক্লিপ প্রকাশ করেছে বিজেপি।  

বিজেপির দাবি ওই অডিও ক্লিপ থেকেই স্পষ্ট, শীতলকুচির ঘটনাতেও মমতা লাশের রাজনীতি করতে চেয়েছিলেন। নির্বাচন কমিশন কোচবিহার ঢুকতে না দেওয়ায় তা পারেননি। এই নিয়েই এদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায় তথা তাঁর দল তৃণমূল কংগ্রেসকে তীব্র আক্রমণ করেন নাড্ডা। তাঁর দাবি, শকুনি যেমন খাবারে জন্য মৃতদেহ খুঁদে বেরায়, তেমনই তৃণমূল কংগ্রেসও ক্ষুদ্র রাজনৈতিক লাভের জন্য মৃতদেহের খোঁজ করে।

আরও পড়ুন - 'এবার, ২০০ আসন পার' - একান্ত সাক্ষাতকারে কী জানালেন স্বপন দাশগুপ্ত

 

আরও পড়ুন - সংগঠন থেকে প্রচার, আরএসএস-ই গড়ে দিয়েছে বিজেপির জয়ের ভিত

 

আরও পড়ুন - শহুরে ভোট ধরতে কৌশল বদল, কোন হাতিয়ারে শিক্ষিত বাঙালীর মন জিততে চাইছে বিজেপি

তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে অবশ্য অডিও ক্লিপটি ভুয়ো বলে উড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। তৃনমূল নেতা তাপ রায়ের দাবি, বিজেপির আইটি সেলের প্রধান অমিত মালব্য এটি তৈরি করেছেন। সত্য মিথ্যা যাই হোক না কেন, সেই প্রলয় পালের সঙ্গে মমতার কথোপকথন, মুকুল রায়ের টেলিফোনিক কথোপকথনের পর, আরও একটি অডিও ক্লিপ নিয়ে সরগরম বাংলার ভোট রাজনীতির ময়দান।