জিতেন্দ্রর বিজেপিতে যোগ দিতেই পাণ্ডবেশ্বরের বিধায়ক কার্যালয় গোবর জলে শুদ্ধ করল তৃণমূল। আসানসোলের প্রাক্তন মেয়র তথা জিতেন্দ্র তিওয়ারির (জিতেন) বিজেপিতে যোগ দিতেই ক্ষুব্ধ পাণ্ডবেশ্বর বিধানসভা কেন্দ্র। এদিকে মঙ্গলবার যার উপস্থিতিতে হুগলির বৈদ্যবাটিতে বিজেপি যোগ দিলেন জিতেন্দ্র, বুধবার সাতসকালে কড়া বার্তা দিলেন সেই দিলীপই।

আরও দেখুন, নন্দীগ্রামে মমতার নামে দেওয়াল লিখন শুরু, মহাশিবরাত্রিতে মনোনয়ন পেশ তৃণমূল সুপ্রিমোর 

 

 

বুধবার সকালে তৃণমূলক্রমীরা পাণ্ডবেশ্বরের বিধায়ক কার্যালয় গোবজল দিয়ে ধুয়ে শুদ্ধ করেছেন। এই কাজে নের্তৃত্ব দিয়েছেন তৃণমূলের ব্লক সভাপতি নরেন্দ্রনাথ চক্রবর্তী এবং হরে রাম সিংহ। জিতেন্দ্র অবশ্য এই মুহূর্তে সপরিবারে রয়েছেন কলকাতায়। তিনি কবে পাণ্ডবেশ্বরে ফিরে আসবেন, এ নিয়ে এখনও কোনও নিশ্চিত খবর পাওয়া যায়নি। সম্ভবত প্রার্থী ঘোষণার পরেই জিতেন্দ্র এখানে ফিরবেন। উল্লেখ্য, রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী রাজীব বন্দ্য়োপাধ্যায় তৃণমূল ছেড়ে যেতেই বিজেপিতে যাওয়ার পর তারও দলীয় কার্যালয় এভাবেই শুদ্ধা করা হয়েছিল। তবে বাদ পড়েননি বৈশালী ডালমিয়াও। বৈশালীকে বহিস্কার করতেই ঢাকঢোল বাজিয়ে মিষ্টি মুখ, বাজি পুড়িয়ে আনন্দে মেতেছিলেন তৃণমূল কর্মীরা।

 আরও পড়ুন, কেন্দ্রীয় সরকারি পদে শুভেন্দুর ইস্তফা ঘিরে জল্পনা তুঙ্গে, কী কারণে এত বড় সিদ্ধান্ত  

 

 

অপরদিকে বুধবার সকালে প্রতিদিনের মত আজ্ও সকালে দিলীপ ঘোষ ইকো পার্কে প্রার্তভ্রমণে আসেন।  তিনি চায়ের বদলে আখের রস পান করেন।এরপর তিনি সাংবাদিক দের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন।  জিতেন্দ্র তিওয়ারি প্রসঙ্গে এদিন তিনি বলেন, 'রোজই সাধারণভাবে কেউ না কেউ জয়েন করছে কিন্তু বিশিষ্ট নেতাদের ব্যপারে  সাধারণ মানুষের কিছু ওপিনিয়ন থাকে সেব্যাপারে সতর্ক হয়ে তারপর নেওয়া হচ্ছে ।অনেক লম্বা লম্বা লিস্ট আসছে ,শেষ পর্যন্ত আমাদের সবার সহমতিতে জয়েন করেছে।  জিতেন্দ্র তিওয়ারির বিরুদ্ধে কয়লা পাচার অভিযোগ নিয়ে বলেন  যে যতক্ষণ না কেউ দোষী প্রমাণিত হচ্ছে ততক্ষণ তাকে দোষী মানা যায় না,  আসানসোলে যারা রাজনৈতিক ভাবে সক্রিয় তাদের সবার বিরুদ্ধেই এধরনের অভিযোগ আছে এটা সত্যি ও হতে পারে ,যদি সেটা প্রমাণিত হয় তাহলে তার দায় সেই ব্যক্তির নিজের দলের নয় ।'