বুধবার কুয়াশা- হিমেল হাওয়ায় ভোর হল শহর-শহরতলিতে। যদিও আদ্রতা বেশি থাকায় অস্বস্তি বেড়েছে। আবহাওয়া দফতরের সূত্র অনুযায়ী, কলকাতার নুন্যতম তাপমাত্রা  ১৩.৮ ডিগ্রি  সেলসিয়াস।  পূর্বাভাস অনুযায়ী তাপমাত্রা বেড়েছে। তবে বুধবার ২০ জানুয়ারি থেকেই ফের পারদ নামার সম্ভাবনা রয়েছে।  উত্তরবঙ্গের ঘন কুয়াশার সতর্কতা।

আরও পড়ুন, Election Live Update-আজ কলকাতায় নির্বাচন কমিশনের ফুল বেঞ্চ, রাজ্যের সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে বৈঠক 


আবহাওয়া দফতর আগাম জানিয়েছিল, ১৯ তারিখ থেকে তাপমাত্রা সামান্য বাড়বে। এবং   পূর্বালী হওয়ার প্রভাবে বুধবার ২০ তারিখ থেকে আবার পারদ নিম্নমুখী হবে।  পাশাপাশি উত্তর বঙ্গে  তাপমাত্রা নিম্নমুখী হবে। কলকাতা বুধবারের তাপমাত্রা ১৩.৮ এবং আগামীকাল ও পরশু এই তাপমাত্রা আরও খানিকটা কমবে। পশ্চিমের জেলা পুরুলিয়া ও পশ্চিম বর্ধমানে সর্বত্র শীতের আমেজ বজায় থাকবে। ২০ তারিখ এর পর থেকে  আবার ধীরে ধীরে তাপমাত্রা কমার  সম্ভাবনা জানালো হওয়া অফিস। দক্ষিণবঙ্গে পাঁচ জেলাতে আবার ঠান্ডা পড়বে।পুরুলিয়া, বাঁকুড়া, বীরভূম, পশ্চিম বর্ধমান, মুর্শিদাবাদে আগামী দুদিন শৈত্যপ্রবাহের সম্ভাবনা।  কলকাতাতেও ১৫ ডিগ্রির নিচে পারদ। উত্তরবঙ্গের স্বাভাবিকের নিচে তাপমাত্রা। উত্তরবঙ্গের ঘন কুয়াশা সর্তকতা। হালকা বৃষ্টি হতে পারে দার্জিলিং, কালিম্পং, আলিপুরদুয়ার, জলপাইগুড়িতে।

আরও পড়ুন, জানুয়ারি শেষে রাজ্যে বাস ধর্মঘটের ডাক, ধর্মঘটের ইন্ধন জোগানের নেপথ্যে কে 


আবহাওয়া দফতরের সূত্র অনুযায়ী, বুধবার শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ২৫.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। নুন্যতম তাপমাত্রা  ১৯.২  ডিগ্রি  সেলসিয়াস। স্বাভাবিকের থেকে ৫ ডিগ্রি উপরে। কলকাতার নুন্যতম তাপমাত্রা ১৩.৮ ডিগ্রি  সেলসিয়াস। শহর ও শহরতলিতে, আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ- সর্বাধিক ৯৯ শতাংশ এবং ন্যুনতম ৫৮ শতাংশ।  
সোমবার শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ২৩.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। স্বাভাবিকের থেকে ২ ডিগ্রি নীচে। নুন্যতম তাপমাত্রা  ১৩.৭ ডিগ্রি  সেলসিয়াস। কলকাতার নুন্যতম তাপমাত্রা ১৪.০ ডিগ্রি  সেলসিয়াস। শহর ও শহরতলিতে, আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ- সর্বাধিক ৯৮ শতাংশ এবং ন্যুনতম ৫১ শতাংশ।  রবিবার শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ২৩.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। স্বাভাবিকের থেকে ৩ ডিগ্রি নীচে। নুন্যতম তাপমাত্রা  ১৪.০ ডিগ্রি  সেলসিয়াস। কলকাতার নুন্যতম তাপমাত্রা ১৪.৬ ডিগ্রি  সেলসিয়াস। শহর ও শহরতলিতে, আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ- সর্বাধিক ৯১ শতাংশ এবং ন্যুনতম ৫৩ শতাংশ।