আর মাত্র কয়েকদিনের অপেক্ষা। এরপরেই কৈলাশ থেকে ছেলেপুলেদের নিয়ে বাপির বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা দেবেন 'মা'। শরতের মেঘলা আকাশ, শিউলি ফুলের গন্ধ জানান দিচ্ছে সে কথা। আর এরই মধ্যে নিজেদের নতুন নতুন চিন্তাভাবনা নিয়ে প্যান্ডেলের কাজ শুরু করেছে দুর্গা পুজো কমিটি এবং ক্লাবগুলি। পুজো মানেই থিমের দৌড়ে কে এগিয়ে কে পিছিয়ে। তাই থিমের ভাবনাকে মাথায় রেখে আবার নতুন থিমের চিন্তাভাবনায় হাওড়ার ধাড়ার মাঠ ভ্রাতৃ সংঘ। 

বরাবরই হাওড়ার সেরা পুজোর তালিকায় থাকে এই ক্লাব। তাদের মণ্ডপে আধুনিক চিন্তাভাবনা ও নতুনত্বের প্রয়োগ সর্বদাই মানুষের মনে আলাদাই জায়গা করে নিয়েছে। তাই প্রতি বছরেই হাওড়ার ধাড়ার মাঠ ভ্রাতৃ সংঘের প্যান্ডেলে ভরে যায় মানুষের ঢল। তবে শুধু তাই নয় অনেক সামাজিক কাজের সঙ্গে যুক্ত রয়েছে  হাওড়ার এই ক্লাব। 

এবছর ৮৩ পেরিয়ে ৮৪ তে পা দিয়েছে হাওড়ার ধাড়ার মাঠ ভ্রাতৃ সংঘ। এবছর তাদের প্যান্ডেলের থিম 'একটি সবুজ ইচ্ছেপূরণ'। ধীরে ধীরে প্লাস্টিক গ্রাস করছে আমাদের পৃথিবীকে। এই প্লাস্টিকের অবয়বে ঢাকা পড়ছে আমাদের শস্য শ্যামলা পৃথিবী। যার ফল স্বরূপ অনাবৃষ্টি, অতিবৃষ্টি তে জর্জরিত মানব সমাজ। বর্তমান সমীক্ষা বলছে, মাটির নীচের জলস্তর আর পুনর্স্থাপন হচ্ছে না কারণ তার উপর জমায়েত হয়েছে প্লাস্টিকের স্তূপ। আমরা অন্তরীক্ষে প্রান খুঁজতে যাচ্ছি আর এরই সঙ্গে নিজেদের সবুজ পৃথিবীটিকে যে ধীরে ধীরে মৃত্যুর মুখে ঠেলে দিচ্ছি সে দিকে নজর নেই কারও। তাই এই প্লাস্টিক দূষণ সম্পর্কে মানুষের সচেতনতাকে আরও কয়েক ধাপ এরগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্যই এই অসাধারন থিমটিকেই নিজেদের পুজোমণ্ডপে ফুটিয়ে তুলতে চলেছে এই ক্লাব। 

গতবছরেও এক অসাধারন থিমের মাধ্যমে দর্শনার্থীদের আবেগতাড়িত  করেছিল হাওড়ার ধাড়ার মাঠ ভ্রাতৃ সংঘ। গতবছর পুজোয় তাদের থিম ছিল 'শিক্ষায় একবিংশের চিন্ময়ী'। এই থিমের মাধ্যমে ভারতে শিক্ষার প্রয়োজনীয়তাকে তুলে ধরেছিল তারা। পেন,পেন্সিল, বই খাতার মাধ্যমে সেজে উঠেছিল তাদের মাতৃ মূর্তি। যা খুবই জনপ্রিয় হয়েছিল দর্শনার্থীদের মধ্যে। তাই এবার ঠিক কি নতুনত্ব রয়েছে তাদের থিমের মধ্যে তা জানতে গেলে অবশ্যই ঘুরে আসতে হবে এই প্যান্ডেলে।  

এই ক্লাবের ঠিকানা হল ৪৭/১জয়নারায়ণবাবু ও আনন্দ দত্ত লেন, হাওড়া, ৭১১১০১ ।