কৌশিক সেন, রায়গঞ্জ:  পুরনো বিবাদের জের? থানা থেকে ঢিলছোঁড়া দূরত্বে দোকানে ঢুকে ব্যবসায়ী কোপাল এক যুবক! হামলাকারীকে হাতেনাতে ধরে ফেলার গণধোলাই দিলেন স্থানীয় বাসিন্দারা। ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়াল উত্তর দিনাজপুরের চোপড়ায়।

আরও পড়ুন: লোকালয়ে ঢুকে পড়েছে 'বাঘ', পায়ের ছাপ দেখে ভয়ে কাঁটা গ্রামবাসীরা

জানা গিয়েছে, আক্রান্তের নাম মনজুর আলম। চোপড়া বাজারে একটি জুতোর দোকান চালান তিনি। বাজারে কাছেই থানা। সোমবার সকালে আচমকাই দোকানের সামনে হাজির হয় শফিক আলম নামে এক যুবক। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, দোকানে ঢুকে অতর্কিতে ধারালো অস্ত্র নিয়ে মনজুরের উপর চড়াও হন শফিক। এলোপাথারি কোপাতে শুরু করে সে। প্রাণ বাঁচাতে শেষপর্যন্ত দোকানে বাইরে এসে চিৎকার করতে থাকেন আক্রান্ত ব্যবসায়ী। চিৎকার শুনে ছুটে আসেন আশেপাশের লোকজন। হামলাকারী যুবককে ধরেও ফেলেন তাঁরা। বেধড়ক মারধর করা হয় শফিককে। তাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

আরও পড়ুন: বড়বাজার শিশু খুন কাণ্ডে রহস্যমোড়, ৫ তলার ওই বারান্দা দিয়ে অভিযুক্তের স্ত্রীও দিয়েছিলেন ঝাঁপ

এদিকে রক্তাক্ত অবস্থায় মনজুরকে প্রথমে নিয়ে যাওয়া হয় স্থানীয় স্বাস্থ্যকেন্দ্রে। অবস্থায় গুরুতর হওয়ায় তাঁকে পাঠিয়ে দেওয়া হয় উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে। আক্রান্তের পরিবারে লোকেদের দাবি, পুরোনা বিবাদের জেরেই হামলার মুখে পড়েছেন মনজুর। এই ঘটনার পিছনের তৃণমূলের স্থানীয় নেতাদেরও মদত আছে। অভিযোগ অস্বীকার করেছ শাসকদল।