দিল্লিতে কাজ করতে গিয়েছিলেন তিনি। সংঘর্ষের মাঝে পড়ে গুরুতর জখম হলেন বাংলার এক শ্রমিক। খবর পেয়ে তাঁকে  ফিরিয়ে এনেছেন পরিবারের লোকেরা, ভর্তি করা হয়েছে হাসপাতালে। উত্তর দিনাজপুরের ইটাহারের ঘটনা।

আরও পড়ুন: প্রাক্তন প্রেমিককে 'আত্মহত্যায় প্ররোচনা', কাঠগড়ায় জেলা পরিষদের সভাধিপতি

আক্রান্তের নাম অজিত শেখ। বাড়ি. ইটাহারের পাজল এলাকায়। দিন দশেক আগে কাজের সন্ধানে দিল্লি গিয়েছিলেন অজিত। তখন হিংসার আগুনে জ্বলছে রাজধানী। পরিবারের লোকেরা জানিয়েছেন, দিল্লির চাঁদনী চক এলাকা থেকে দরিয়াগঞ্জে যাওয়ার পথে আক্রান্ত হন অজিত। মাথায় ভারী কোনও বস্তুর আঘাতে জ্ঞান হারান তিনি। বাড়ির লোকেদের দাবি, ঘটনার পর প্রায় চার ঘণ্টা জ্ঞান ছিল না অজিতের। যখন জ্ঞান ফেরে, ততক্ষণে আক্রান্তকে ভর্তি করা হয়েছে দিল্লির সেনা হাসপাতালে। ওই শ্রমিকের বাড়ি লোক খবর পেলেন কী করে? দিল্লিতে একটি বাড়িতে ভাড়া নিয়ে থাকতেন অজিত। সেই বাড়ির মালিকই ফোন করে অজিতের বাড়িতে খবর দেন বলে জানা গিয়েছে। খবর পাওয়ার পর আর দেরি করেননি। দিল্লির উদ্দেশ্যে রওনা দেন পরিবারের লোকেরা। শনিবার রাতে গুরুতর জখম অবস্থায় ওই শ্রমিককে নিয়ে আসা হয় রায়গঞ্জে। এখন রায়গঞ্জ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে চিকিৎসা চলছে তাঁর।  ়

আরও পড়ুন: রোগ লুকিয়ে বিয়ের শখ, হালিশহরে এইচআইভি আক্রান্ত বরকে আটক করল পুলিশ

এদিকে এই ঘটনার পর নড়চড়ে বসেছে উত্তর দিনাজপুর জেলা প্রশাসন। প্রশাসনের তরফে গোটা বিষয়টি খতিয়ে দেখার আশ্বাস দিয়েছেন জেলাশাসক অরবিন্দ কুমার মীনা।  সূত্রে খবর, উত্তর দিনাজপুর যাঁরা কর্মসূ্ত্রে দিল্লিতে রয়েছেন, তাঁদের নাম তালিকা তৈরি করা হচ্ছে। প্রয়োজন সকলেই ফিরিয়ে আনার ব্যবস্থা করা হবে।