গায়ে হলুদ হয়ে গেছে।  শুধু বিয়েটা বাকী। কিন্তু মারন এইচআইভি রোগই বাধা হয়ে দাড়াল হালিশহরের মান্না-এর। সেই রোগ লুকিয়েই বিয়ের শখ জেগেছিল তাঁর। অবশেষে প্রতারণার অভিযোগে বিয়েবাড়ির আসর থেকে হবু বর মান্নাকে আটক করল পুলিশ। ইতিমধ্য়েই হবু বর মানুষিকভাবে অসুস্থ কিনা তাঁর জন্য় কাউন্সিলিং এর ব্য়বস্থা করা হয়।

আরও পড়ুন, চলন্ত ট্রেন থেকে পড়ে গিয়েও বেঁচে গেল দুধের শিশু, রেল পুলিশের ভূমিকায় প্রশংসা


সূত্রের খবর, কাউকে না জানিয়েই কল্যানীর এক যুবতীর বিয়ে প্রস্তুতি চলছিল। কিন্তু ওই যুবতী জানতোই না তার হবু বর এইচআইভি রোগে আক্রান্ত। তাঁকে এই মারন রোগের হাত থেকে বাঁচাল এইডস আক্রান্ত  সেচ্ছাসেবী সংস্থার সদস্যরা। এদিন বিয়ের খবর পেয়েই সড়াসড়ি তারা মহকুমা শাসকের সঙ্গে যোগাযোগ করে। তারপর সেখান থেকে বীজপুর থানায় চলে এসে অভিযোগ দায়ের করেন। এরপরই পুলিশের তরফে পদক্ষেপ নেওয়া হয়। 

আরও পড়ুন, কলকাতায় অমিত শাহ Live: আর কিছুক্ষণের মধ্যেই শহরে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী


সূত্রের খবর, এরপর পুলিশের সহযোগিতায় হবু বর মান্নাকে থানায় আটক করে  নিয়ে আসা হয়। তবে মারণ রোগ হওয়ার পরেও কেন ওই যুবক না জানিয়ে বিয়ে করতে চাইছিলেন, তা নিয়ে ধোঁয়াশা তৈরি হয়। তাই  তার কাউন্সিলিং এর ব্য়বস্থা করা হয়। রোগ লুকিয়ে বিয়ের কথা স্বীকারও করেন। তবে এইচআইভি সংস্থার সভাপতি জানান,খুব অল্প সময়ের মধ্যে দুটি প্রাণকে বাঁচানো গেল।

আরও পড়ুন, শহরে এখনও স্বস্তির আবহাওয়া, শীতের বিদায়ে আবারও বৃষ্টির সম্ভাবনা