লম্বা ঘন চুল সব মেয়েরই পছন্দের। কথায় বলে, মেয়েদের সৌন্দর্যের আসল রহস্যই নাকি লম্বা, ঘন চুল। সেই চুলই কেউ স্বেচ্ছায় কেটে ফেলার কথা বললে হয়তো অনেক  মেয়েই আঁতকে উঠবেন। আর সেই কাজটাই করলেন রায়গঞ্জের বাসিন্দা রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের সংস্কৃতের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী বছর ২০ বয়সি জয়শ্রী দেবনাথ। ক্যান্সার আক্রান্ত নারীদের পাশে দাঁড়াতে নিজের সাধের লম্বা চুল দান করে দিলেন তিনি। ক্যান্সার রোগীদের জন্য পরচুলা তৈরি করতেই নিজের চুল দান করেছেন তিনি। ইতিমধ্যেই মুম্বাইয়ের একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার পক্ষ থেকে তাঁর চুল সংগ্রহ করা হয়েছে।  

কেমোথেরাপি জেরে ক্যান্সার আক্রান্ত অনেকেরই চুল সম্পূর্ণভাবে উঠে বা ঝরে যায়। ফলে শারীরিক ভাবে সুস্থ হয়ে উঠলেও মাথায় চুল না থাকায় হীনমন্যতায় ভোগেন অনেকে। পরচুলা কিনে তা লাগানোটা যথেষ্ট ব্যয়স্বাপেক্ষ হওয়ায় অনেকেই তা করতে পারেন না। সেই সমস্ত ক্যান্সার আক্রান্ত মহিলাদের জন্যই নিজের চুল দান করেছেন জয়শ্রী।  

প্রয়াস ক্ষুদ্র হলেও তার এই মহতী উদ্যোগে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছে 'ফিনফিড' নামে একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা। ওই স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার অন্যতম সদস্যাও জয়শ্রী। নিজের  মেয়ের এই উদ্যোগকে সর্বতোভাবে সমর্থন করেছেন জয়শ্রীর মা জয়ন্তীদেবী। মেয়ের এই মহতী কাজে তিনি গর্বিত  বোধ করছেন। চুল দাতা জয়শ্রী বলেন, 'ক্যান্সারের মতো ব্যয়বহুল চিকিৎসা করার পরে অনেকের পক্ষেই দাম দিয়ে পরচুলা কেনা সম্ভব হয়না। এরকম কারও মুখে যদি আমি হাসি ফোটাতে পারি, তার থেকে তৃপ্তিদায়ক কিছু হয়না।  ছোট থেকেই ইচ্ছে ছিল মানুষের জন্য কিছু করার।  আজ তা করতে পেরে খুবই ভালো লাগছে।'