আশিষ মণ্ডল, বীরভূম:  দলের কাজ সেরে ফেরার পথে রহস্য়মৃত্যু! রাস্তা থেকে উদ্ধার হল তৃণমূল এক ছাত্রনেতা ও তাঁর সঙ্গী রক্তাক্ত দেহ। ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে বীরভূমের রামপুরহাটে তদন্তে নেমেছে পুলিশ।

আরও পড়ুন: বাঁশ উঁচিয়ে মহিলাদের মারছেন তৃণমূল নেতা, গড়বেতার ছবি ভাইরাল হতেই গ্রেফতার দাপুটে

রামপুরহাট পুরসভার ব্রাহ্মণী এলাকার বাসিন্দা রকি আলি। একসময়ে রামপুরহাট কলেজের ছাত্র সংসদের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন তিনি। পরিবারের লোকেরা জানিয়েছেন, সংগঠনের কাজে বুধবার নলহাটিতে গিয়েছিলেন রকি। তাঁর সঙ্গে ছিলেন স্বাধীন শেখ নামে আরও একজন। কাজে সেরে বাইকে করে ফিরছিলেন দু'জনে। তারপর? গভীর রাতে স্থানীয় স্বাধীনপুর গ্রামে ৬০ নম্বর জাতীয় সড়কে তৃণমূল কংগ্রেসর ছাত্রনেতা ও তাঁর সঙ্গীর রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখেন স্থানীয় বাসিন্দারা। খবর পেয়ে পুলিশ যখন তাঁদের উদ্ধার করে রামপুরহাট মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে নিয়ে যায়, তখন রকিকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা। বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজে নিয়ে যাওয়ার পথে মারা যান স্বাধীনও।

আরও পড়ুন: ফতোয়া কমিটিতে তিন তৃণমূল নেতার নাম, মুর্শিদাবাদের ঘটনা ঘিরে বিতর্ক রাজ্য়ে

বৃহস্পতিবার সকালে প্রয়াত ছাত্রনেতার দেহ রামপুরহাট কলেজের সামনে আনা হয়। সেখানে তাঁকে শেষশ্রদ্ধা জানান তৃণমূল নেতা ও ছাত্র নেতারা। রকি শেখের মৃত্যুতে শোকপ্রকাশ করেছেন যুব তৃণমূলের রাজ্য সভাপতি, সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ও। শুক্রবার রামপুরহাটে প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর সমস্ত কর্মসূচি বাতিল করে দিয়েছেন টিএমসিপি-র স্থানীয় নেতারা। কীভাবে এই ঘটনা ঘটল? তা কিন্তু স্পষ্ট নয়। তবে জাতীয় সড়কে দুর্ঘটনায় তৃণমূল ছাত্রনেতা ও তাঁর সঙ্গীর মৃত্যু হয়েছে বলে প্রাথমিক অনুমান পুলিশের।