দেশের বিভিন্ন প্রান্তে গিয়েছেন তাঁরা। করোনা আতঙ্কের মাঝে ফিরলেন পর্যটকরা। খবর পেয়েই তৎপরতা দেখাল প্রশাসন। কড়া নিরাপত্তায় পর্যটকদের বাসটিকে নিয়ে যাওয়া হল শহরের বাইরে। স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হল সকলের। মুর্শিদাবাদের জিয়াগঞ্জের ঘটনা।

আরও পড়ুন: মুখে মাস্ক দিয়ে মাংস কিনতে ব্যস্ত মানুষ, জনতা কার্ফুতেও ভীড় ঘাটালের দোকানে

গয়া, কাশি, বৃন্দাবন, স্বর্ণমন্দির....বাদ দেননি কিছুই। বাইশ দিনের সফরে দেশের বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে বেড়িয়েছেন মুর্শিদাবাদের ৬৪ জন পর্যটক। তাঁদের বাড়ি জিয়াগঞ্জ থানা এলাকার বিভিন্ন জায়গায়। করোনা আতঙ্কে এখন থরহরিকম্প গোটা রাজ্য। বাইরে থেকে এলেই স্বাস্থ্য পরীক্ষা ও সেল্প আইসোলেশনে থাকার পরামর্শ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পর্যটকদের বাসটি শনিবার সকালে যখন জিয়াগঞ্জ শহরে পৌঁছয়, তখন রীতিমতো শোরগোল পড়ে যায় এলাকায়। নড়েচড়ে বসে প্রশাসন। পুলিশের সাহায্যে রীতিমতো নিরাপত্তা বলয় তৈরি করে বাসটিকে শহরের বাইরে নিয়ে যাওয়ার ব্যবস্থা করেন বিডিও। সেখানে পর্যটকদের আলাদাভাবে শারীরিক পরীক্ষা করা হয়, শরীরের তাপমাত্রাও মেপে দেখেন স্বাস্থ্যকর্মীরা। 

আরও পড়ুন: 'কাঠ কয়লার টিপ পরলেই করোনা থেকে মুক্তি', আতঙ্কের মাঝে ফের গুজব ছড়াল রাজ্যে

জিয়াগঞ্জ হাসপাতালের বি এম ও এইচ  সৌমিক মন্ডল জানিয়েছেন, 'আমরা বাসের সমস্ত যাত্রীর স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে দেখেছি। কারও শরীরে সন্দেহজনক কোনও উপসর্গ পাওয়া যায়নি। সকলেই বাড়ি ফিরে গিয়েছেন। তবে বাড়িতে ১৪ দিন আলাদা থাকার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।  এরমধ্যে যদি সন্দেহজনক কোনও উপসর্গ দেখা না দেয়, তাহলে স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে কোনও বাধা নেই। '