লঙ্কার গুঁড়োতে কাজ হয়নি। আসানসোলে এবার পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি চালাল দুষ্কৃতীরা। গুলিবিদ্ধ হয়েছেন এসআই-সহ দু'জন পুলিশকর্মী। একজন ভর্তি দুর্গাপুরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে, আর একজন জেলা হাসপাতালে। অভিযুক্তরা পলাতক। তাদের সন্ধান চালাচ্ছে আসানসোল দক্ষিণ থানার পুলিশ।  সোমবার ভোররাতে ঘটনাটি ঘটেছে আসানসোল স্টেশন রোডে।

আরও পড়ুন:পা নামালেই সাপের ছোবল, আতঙ্কে কাঁটা ক্যানিংয়ের বিদ্যুৎ দফতরের কর্মীরা

ঘড়িতে তখন  ভোর সাড়ে চারটে। আসানসোল স্টেশনে রোডের ১৩ নম্বর এলাকার ডিউটি করছিলেন এসআই সন্দীপ পাল, কনস্টেবল অরিজিৎ সামন্ত ও সিভিক ভলান্টিয়ার দুর্গাক্ষেত্র পাল। সকলেই আসানসোল দক্ষিণ থানার কর্মী।  পুলিশ জানিয়েছে, এক অটোচালক এলে তাঁদের বলে তিনজন যাত্রী ভাড়া দিতে চাইছে না, ঝামেলা করছে। ওই তিন যাত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে শুরু করেন এসআই সন্দীপ পাল। কথায় অসঙ্গতি থাকায় তাদের থানায় নিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন কর্তব্যরত ওই পুলিশ আধিকারিক। যখন গাড়িতে তোলা হচ্ছে, তখন পুলিশকর্মীদের লক্ষ্য করে প্রথমে লঙ্কা গুঁড়ো ছিটিয়ে দেয় ওই তিনজন। পুলিশের সঙ্গে ধস্তাধস্তি শুরু হয়ে তাদের। শেষপর্যন্ত পুলিশকর্মীদের লক্ষ্য করে গুলি চালিয়ে চম্পট দেয় তারা। ঘটনার পরে আসানসোল দক্ষিণ থানায় ফিরে জ্ঞান হারান এসআই সন্দীপ পাল। তড়িঘড়ি তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয় হাসপাতালে। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, ওই পুলিশ আধিকারিকের পিঠে গুলি লেগেছে। শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাঁকে স্থানান্তরিত করা হয়েছে দুর্গাপুরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে।  কাঁধ ঘেষে গুলি চলে যাওয়ায় অল্পের জন্য রক্ষা পেয়েছেন আসানসোল দক্ষিণ থানার কনস্টেবল অরিজিৎ সামন্ত। তিনি ভর্তি আসানসোল জেলা হাসপাতালে। 

আরও পড়ুন: বাড়িতে হাজির গৃহবধূর প্রেমিক, খুন করে ভাগাড়ে দেহ ফেলে দিল দম্পতি

ঘটনায় অভিযুক্তদের সন্ধানে তল্লাশিতে নেমেছে আসানসোল দক্ষিণ থানার পুলিশ। তদন্তকারীদের অনুমান, তাদের সঙ্গে জামশেদপুরের কুখ্যাত দুষ্কৃতী সোনু সিংয়ের যোগাযোগ থাকতে পারে।  শহরজুড়ে চলছে নাকা চেকিং।  সম্প্রতি আসানসোলের বরাকরে স্থানীয় কাউন্সিলরকে গুলি করে খুন করেছে দুষ্কৃতীরা। কুলটিতে এক ব্য়বসায়ীর গাড়ি লক্ষ্য করে গুলি চলেছে।