আশিষ মণ্ডল, বীরভূম: বিজেপি-এর থানা ঘেরাও অভিযানকে কেন্দ্র করে ধুন্ধুমার কাণ্ড। মুড়ি-মুড়কির মতো বোমা পড়ল এলাকায়। ভোটে মুখে ফের উত্তপ্ত বীরভূম পাড়ুই। গেরুয়াশিবিরের অভিযোগ, তাদের কর্মসূচি বানচাল করতেই পরিকল্পনামাফিক বোমাবাজি করেছে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা। যথারীতি অভিযোগ অস্বীকার করেছে রাজ্যের শাসকদল।

আরও পড়ুন: বিজেপির নবান্ন অভিযান ঘিরে পুলিশের উচ্চ পর্যায়ে বৈঠক হাওড়া শরৎ সদনে

ঘটনার সূত্রপাত বুধবার সকালে। রাজ্যে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতির অভিযোগ তুলে পাড়ুই থানা ঘেরাও-এর পরিকল্পনা করে বিজেপি। সেই কর্মসূচি সফল করতে সকাল থেকে থানার সামনে জড়ো হচ্ছিল দলের কর্মী-সমর্থকরা। আর ঠিক তখনই সিউড়ি-বোলপুর রাজ্য সড়কে জমায়েত লক্ষ্য একদল দুষ্কৃতী বোমাবাজি শুরু করে বলে অভিযোগ। প্রত্যক্ষদর্শীদের দাবি, যারা বোমাবাজি করছিল, তাদের সকলেরই মুখ গামছায় ঢাকা ছিল। একসময়ে প্রায় মুড়ি-মুড়কির মতো বোমা পড়তে শুরু করে। আতঙ্কে তখন যে দিকে পারছেন, সেই দিকে ছুটছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় পাড়ুই থানার পুলিশ। দীর্ঘক্ষণের চেষ্টায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে।

আরও পড়ুন: উচ্চ ক্ষমতা দেওয়া হোক পাহাড়কে, জিটিএ নিয়ে কেন্দ্রের বৈঠকের আগেই সরব সিপিএম

এদিকে এই ঘটনায় তৃণমূলের দিকে আঙুল তুলেছেন স্থানীয় বিজেপি নেতারা। উঠেছে পুলিশি নিষ্ক্রিয়তার অভিযোগও। বিক্ষোভকারীদের দাবি, খবর পাওয়ার পরে অনেক দেরি ঘটনাস্থলে যা পুলিশ। এমনকী, পুলিশের সামনে নির্বিচারে চলে বোমাবাজি। পুলিশের তরফে কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি। তবে বোমাবাজির অভিযোগ অস্বীকার করেছে তৃণমূল নেতৃত্ব।