এবার বিজেপির গোষ্ঠী কোন্দল প্রকাশ্য়ে। অশোকনগরে ভিন দল থেকে আসা বিজেপি নেতা কর্মীদের হাতে আক্রান্ত হলেন দলের পুরোনো নেতা ও তাঁর সমর্থকরা। অভিযোগ, হামলাকারীদের হানায় গুরুতর আহত হয়েছেন বিজেপি নেতা সহ ৪ জন । যা দেখে খোঁচা দিতে ছাড়ছে না তৃণমূল। সব মিলিয়ে ধুন্ধুমার কাণ্ড অশোকনগরে।

'বিজেপি করার অপরাধে' বিষ্ণুপুরে গুলিবিদ্ধ মহিলা কর্মী,কাঠগড়ায় তৃণমূল

জানা গিয়েছে, নব্যদের হামলার শিকার হয়েছেন অশোকনগর ৪নম্বর জোড়াপুকুর এলাকার বাসিন্দা অনিকেত দে ও তাঁর অনুগামী চার যুবক। মারধরের অভিযোগ উঠেছে বিজেপির বারাসত সাংগঠনিক জেলার ওবিসি মোর্চার সভাপতি নীলরতন মিত্রের অনুগামীদের বিরুদ্ধে । অনিকেত একসময়  বারাসত সাংগঠনিক জেলার বিজেপি যুব মোর্চা সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।  রাজ্য যুব মোর্চার এক্সিকিউটিভ সদস্য হিসেবেও বেশ কিছুদিন দায়িত্ব সামলেছেন । অশোকনগর এলাকার পরিচিত মুখ তিনি। 

কলকাতার সেরা পাঁচ রাস্তার খাবার, না খেলে জীবন বৃথা আপনার

অভিযোগ, রবিবার সন্ধে পৌনে সাতটা নাগাদ অশোকনগর আস্রাফাবাদ এলাকার একটি এটিএমের সামনে অনিকেত ও তার পরিচিতদের বিজেপি কর্মীদের ওপর হামলা চালানো হয়।  অতর্কিতে অনিকেতের উপর হামলা করে বিজেপির অন্যদল থকে যোগ দেওয়া কয়েকজন। হামলা রুখতে এসে আক্রান্ত হয় আরও চার বিজেপি সমর্থক। অভিযোগ হাতুড়ির আঘাত করে অনিকেতের মাথা ফাটিয়ে দেওয়া হয় । 

"

আক্রান্ত অবস্থায় তাকে হাবড়া হাসপাতালে নিয়ে গেলে তার মাথায় সাতটি সেলাই পড়েছে । অনিকেতের সঙ্গে থাকা বাকিদেরও প্রাথমিক চিকিৎসা হয় হাসপাতালে । ঘটনায় গতকাল গভীর রাতে অশোকনগর থানায় হামলাকারী বেশ কয়েকজনের নাম-এর লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।  তবে এখনও কেউ গ্রেফতার হয়নি। অনিকেতের দাবি, হামলাকারীরা দুষ্কৃতী। তারা গত লোকসভা নির্বাচনের পর বর্তমান জেলা সভাপতি শংকর চ্যাটার্জির ও ওবিসি মোর্চার সভাপতি নীলরতন মিত্রের হাত ধরে অন্যান্য দল থেকে বিজেপিতে যোগ দিয়েছিল।