আশিষ মণ্ডল, বীরভূম:  বিজেপিতে যোগদানের মাশুল? বীরভূমে আক্রান্ত হলেন সংখ্যালঘু সেলের পদাধিকারী। মারধরের অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে। আক্রান্তের বিরুদ্ধে চাকরি দেওয়ার নামে প্রতারণার পাল্টা অভিযোগ করেছে শাসকদলের স্থানীয় নেতৃত্ব। ঘটনাটি ঘটেছে রামপুরহাট শহর লাগোয়া মাড়গ্রামে।

আরও পড়ুন: 'সবার প্রিয় লড়াকু নেতা', শুভেন্দু অধিকারীর সমর্থনে এবার পোস্টার পড়ল বারুইপুরে

স্থানীয় সূ্ত্রে খবর, আক্রান্তের নাম রেজাউল ইসলাম। বাড়ি, মাড়গ্রামের রাখাপাড়া এলাকায়। রবিবার সকালে আচমকাই রেজাউলের বাড়িতে চড়াও হয়ে ভাঙচুর চালায় কয়েক দুষ্কৃতী। বাড়ির মালিককে বেধড়ক মারধর করা হয় বলে অভিযোগ। আক্রান্তের দাবি, ২০ নভেম্বর তাঁর নেতৃত্বে এলাকার কয়েকশো সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মানুষ বিজেপিতে যোগ দেন। সেই আক্রাশেই বাড়িতে হামলা ও তাঁকে মারধর করেছেন স্থানীয় তৃণমূলের কর্মী-সমর্থকরা। মাড়গ্রাম থানায় মৌখিকভাবে অভিযোগও দায়ের করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: বাংলায় আসন সমঝতা নিয়ে সাবধান হতে হবে, বিহারে কংগ্রেসের খারাপ ফলের পর পরামর্শ বাম নেতার

সত্যিই কি তাই? অভিযোগ অস্বীকার করেছে তৃণমূল। দলের নেতা আলমগীর শেখের বক্তব্য. চাকরি দেওয়ার নাম করে স্থানীয় কয়েকজন যুবকের কাছ থেকে লক্ষাধিক টাকা নিয়েছে রেডাউল। চাকরি না পেয়ে রবিবার সকালে যখন টাকা চাইতে যান, তখন ওই যুবকদের অপমান করে তাড়িয়ে দেন আক্রান্ত ব্যক্তি। সেই ঘটনা ধামাচাপা দিতে তৃণমূলের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ করছেন তিনি।