কাটমানি বিক্ষোভের ফায়দা নিতে মরিয়া বিজেপি। তাই এবার সরাসরি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের নাম টেনে আনলেন বিজেপি নেতা কৈলাস বিজয়বর্গীয়। অন্যদিকে রাজ্য বিজেপি-র নেতা সায়ন্তন বসুর কটাক্ষ, কালীঘাটে এবার তাঁরা কাটমানি কাউন্টার খুলবেন। 

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কাটমানি ফেরানোর নির্দেশ দেওয়ার পর থেকেই রাজ্য জুড়ে বিক্ষোভের মুখে পড়ছেন তৃণমূল নেতারা। দিন দিন সেই বিক্ষোভ ক্রমশ বাড়ছে। সুযোগ বুঝে আসরে নেমেছে বিরোধীরাও। অনেক জায়গাতেই সাধারণ মানুষের বিক্ষোভে বিজেপি-র বিরুদ্ধে উস্কানি দেওয়ার অভিযোগ তুলছে তৃণমূল। 

আরও পড়ুুন- দাহ করার টাকা থেকেও কাটমানির অভিযোগ, জনরোষে ঘরছাড়া তৃণমূলের উপপ্রধান, দেখুন ভিডিও

শনিবার দিল্লিতে বিজেপি নেতা কৈলাস বিজয়বর্গীয় কাটমানি বিতর্কে এবার সরাসরি সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের নাম টেনে আনলেন। তিনি বলেন, 'তৃণমূল নেতাদের ঘিরে কাটমানির ফেরানোর বিক্ষোভ দেখাচ্ছে সাধারণ মানুষ। কিন্তু তৃণমূলের ছোট নেতারা  কাটমানির যে অংশ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় পর্যন্ত পৌঁছে দিয়েছেন, তার কী হবে? মুখ্যমন্ত্রীর এই বিবৃতির পর এখন তৃণমূল নেতাদের মধ্যেই মারামারি হচ্ছে।'

অন্য দিকে বসিরহাটে বিজেপি নেতা সায়ন্তন বসু কটাক্ষ করে বলেন, 'আমরা এবার কালীঘাটে একটা কাউন্টার খুলব। যে তৃণমূল নেতারা কাটমানি খেয়েছেন, তাঁদের নামে টোকেন দেওয়া হবে। ওই টোকেন নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী থেকে শুরু করে অন্য তৃণমূল নেতাদের বাড়ির বাইরে যাঁরা কাটমানি দিয়েছেন, তাঁরা লাইন দেবেন।'

তবে বিরোধীরা যাই বলুন না কেন, কাটমানি এবং দুর্নীতি আটকাতে তিনি যে কড়া অবস্থানই বজায় রাখবেন, তা ইতিমধ্যেই স্পষ্ট করে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। তবে দলের পক্ষ থেকে পার্থ চট্টোপাধ্যায় বিবৃতি দিয়ে দাবি করেছেন, মুখ্যমন্ত্রী মনে করেন তৃণমূলের ৯৯.৯৯ শতাংশ নেতাই সৎ, কোনওরকম দুর্নীতির সঙ্গে তাঁরা জড়িত নন।