কুকথায় কে কাকে টেক্কা দেবেন, এই প্রতিযোগিতাতেই যেন নেমেছেন রাজ্য বিজেপি-র তিন নেতা। দলীয় সভাপতি দিলীপ ঘোষের সঙ্গে পাল্লা দিচ্ছেন বিষ্ণুপুরের বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ। কম যাচ্ছেন না এ রাজ্যে দলের সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসুও। এবার রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের শারীরিক গঠন এবং চরিত্র নিয়ে চূড়ান্ত অশালীন আক্রমণ করলেন বিষ্ণুপুরের বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র। 

এ দিন বাঁকুড়ার পাত্রসায়েরে এনআরসি ও সিএএ- র সমর্থনে বিজেপি- র একটি দলীয় সভায় শিক্ষা মন্ত্রী সম্পর্কে এমনই কুরুচিকর মন্তব্য করেন বিষ্ণুপুরের বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ। তাঁর অভিযোগ, কয়েকদিন আগে পার্থবাবু বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষকে 'জন্তু- জানোয়ার' বলে আক্রমণ করেন। তারই পাল্টা জবাব দিতে গিয়ে শিক্ষামন্ত্রীকে 'হোঁদল' বলে মন্তব্য করেন সৌমিত্র। শুধু তাই নয়, শিক্ষামন্ত্রী তাঁর 'বান্ধবীদের' সরকারি চাকরি দিচ্ছেন বলেও অভিযোগ করেছেন সৌমিত্রবাবু। 

প্রকাশ্য সভাতেই সৌমিত্র শিক্ষামন্ত্রীর উদ্দেশে বলেন, 'সারা রাজ্যের মানুষ বুঝে গিয়েছে যে আপনি শিক্ষা দফতর নয়, অন্য কোনও দফতর চালাচ্ছেন।' নিজের বক্তব্যে অনড় থেকে সভার শেষেও সৌমিত্র খাঁ বলেন, 'আমাদের গ্রামাঞ্চলে একটা জন্তু থাকে, তাকে বলে হোঁদল। আমি পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে হোঁদল বলেছি। ওনাকে বলুন আমার নামে মামলা করতে। আর উনি যাদের চাকরি দিচ্ছেন তাদের কোনও যোগ্যতা নেই।'

আরও পড়ুন- পুরভোটে তৃণমূলের ছাল চামড়া গোটাবেন, বাঁকুড়ায় হুঁশিয়ারি বিজেপি সাংসদের

সম্প্রতি পরের পর কুরুচিকর মন্তব্য করে সমালোচনার মুখে পড়েছেন বিষ্ণুপুরের বিজেপি সাংসদ। নাগরিকত্ব আইনের বিরোধিতা করায় বিদ্বজ্জনদের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কুকুর বলেন তিনি। কয়েকদিন আগে বাঁকুড়ার সভা থেকেই পুরভোটে তৃণমূল নেতাদের ছাল চামড়া তোলার হুঁশিয়ারি দেন। এবার শিক্ষামন্ত্রীকে কুরুচিকর আক্রমণ করেন তিনি। এ বিষয়ে শিক্ষামন্ত্রীকে ফোন করা হলেও তাঁর কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।