শুভজিৎ পুততুণ্ড,বারাসত-সোমবার দিনে দুপুরে বাড়িতে বিজেপির মহিলা কর্মীকে গুলি করে দুষ্কৃতীরা। দক্ষিণ ২৪ পরগনার বিষ্ণুপুর বিধানসভার রঘুদেবপুর গ্রামের রাধারানি নস্কর গুলিবিদ্ধ অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি। ঘটনায় হামলার অভিযোগ ওঠে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে। ওই ঘটনার প্রতিবাদে মঙ্গলবার বিষ্ণুপুর থানা ঘেরার করল বিজেপি। থানার সামনে অবস্থান বিক্ষোভ করেন বিজেপি কর্মী সমর্থকরা।

এদিন বিজেপি নেতা অর্জুন সিং ও অগ্নিমিত্রা পালের নেতৃত্বে বিষ্ণুপুর থানার সামনে বিক্ষোভ দেখায় কর্মী সমর্থকরা। থানার দফায় দফায় বিক্ষোভ উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। পরিস্থিতি সামাল দিতে থানা চত্বরে বিশাল পুলিশ বাহিনী মোতায়েন করা হয়। 

বিজেপি নেত্রী অগ্নিমিত্রা পালের অভিযোগ, ''তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা বিজেপি কর্মী রাধারানি নস্করের বাড়িতে ঢুকে হামলা চালায়। প্রতিবাদ করায় ওই মহিলার পিছনে গুলি করে দুষ্কৃতীরা। বর্তমানে আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি। এ রাজ্যে বিজেপি করা পাপ, এটাই মনে করেন মুখ্যমন্ত্রী। মিথ্যা মামলায় ফাঁসিয়ে দেওয়া হচ্ছে বিজেপি নেতাদের। গুলি চালনায় মূল অভিযুক্ত পঞ্চা নস্কর এখনও পলাতক, সেই দুষ্কৃতীকে এখনও গ্রেফতার করেনি পুলিশ''।

বিজেপি নেতা অর্জুন সিংয়ের অভিযোগ, '' বাংলায় আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি বলতে কিছু নেই। বাংলার যত্রতত্র গুলি বোমা তৈরি হচ্ছে। বাংলাকে পাকিস্তানে পরিণত করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। তৃণমূলের জমানা শেষ হতে চলেছে, তাই দুষ্কৃতীদের গিয়ে বিজেপির উপর হামলা করছে তৃণমূল''। 

অন্যদিকে, বিজেপি মহিলা কর্মী রাধারানি নস্করের উপরের হামলায় ঘটনায় এখনও পর্যন্ত ৬ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। যদিও, মূল অভিযুক্ত পঞ্চানন নস্কর এখনও পলাতক। অধরা দুষ্কৃতীদের খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে পুলিশ।