কলকাতায় অমিত শাহের সভায় যোগ দিতে যাওয়ার পথে বাসে হামলা, আক্রান্ত হলেন বিজেপি সমর্থক। আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি বেশ কয়েকজন। চারজনের অবস্থা গুরুতর। প্রতিবাদে থানা ঘেরাও চলল বিক্ষোভ। ঘটনায় উত্তেজনা ছড়াল হুগলির জাঙ্গিপাড়ায়।  

আরও পড়ুন: অপরিষ্কার হয়ে স্কুলে, শিবির করে পড়ুয়াদের চুল-নখ কাটালেন শিক্ষকরা

আরও পড়ুন: 'অত্যাচারে ঘরছাড়া স্ত্রী', বৃদ্ধা মা-কে কুপিয়ে খুন করল ছেলে

দিনভর ঠাসা কর্মসূচি। একদিনের সফরে শনিবার কলকাতায় আসেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও বিজেপি-র প্রাক্তন সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। শহিদ মিনার চত্বরে জনসভা করেন তিনি। রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে থেকে বিজেপি সমর্থকরা যোগ দিয়েছিলেন সভায়। জানা গিয়েছে, হুগলি জেলা থেকে বারোটি বাসে চেপে বিজেপি সমর্থকরা কলকাতা রওনা দিয়েছিলেন। শেষ বাসটি ছেড়েছিল রসিদপুর থেকে।  বিজেপির  অভিযোগ, জাঙ্গিপাড়ায় বাহানা গ্রামের কাছে বাসটি দাঁড় করায় দুষ্কৃতীরা। লাঠি,বল্লম চলে ভাঙচুর। দলের কর্মী-সমর্থকদের বাস থেকে নেমে যেতে বলে হামলাকারীরা। রাজি না হওয়ায় তাঁদের বেধড়ক মারধর করা হয়। কারও মাথা ফেটে যায়, তো কেউ আবার মুখে আঘাত পান। হামলাকারীরা 'মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জিন্দাবাদ', 'তৃণমূল কংগ্রেস জিন্দাবাদ' স্লোগানও দিচ্ছিল বলে অভিযোগ।  আহতেরা সকলেই ভর্তি হাসপাতালে। ঘটনার পর দোষীদের গ্রেফতারের দাবিতে জাঙ্গিপাড়া থানা ঘেরাও বিক্ষোভ দেখান বিজেপি কর্মী-সমর্থকরা।

 

বিজেপি সমর্থদের বাসে হামলা চালানোর অভিযোগ অস্বীকার করেছেন তৃণমূল কংগ্রেসের হুগলি জেলা সভাপতি দিলীপ যাদব। তাঁর বক্তব্য, এই ঘটনার সঙ্গে রাজনীতির কোনও সম্পর্ক নেই। বিজেপি অপর গোষ্ঠী লোকেরাই বাসে হামলা চালিয়েছেন।  তদন্তে নেমেছে পুলিশ।