ফের সিএএ প্রচার ঘিরে রাজনৈতিক তরজা। যার জেরে উত্তাল হয়ে উঠল উত্তর ২৪ পরগনার কুমড়ো কাশিপুরে বাঘাডাঙ্গা গ্রাম। বিজেপি কর্মীদের অভিযোগ,রবিবার সিএএ নিয়ে প্রচারে নামলে তৃণমূলের দুষ্কৃতীদের হামলার শিকার হন তারা। যদিও তৃণমূল কর্মীদের দাবি, বিজেপির কর্মী সমর্থকদের হাতে জখম হয়েছে তাদের কর্মীরা।

তরুণীর গোপন মুহূর্তের ছবি ছড়ানোর শাস্তি, ২ বছরের কারাদণ্ড যুবকের

সূত্রের খবর, রবিবার রাজনৈতিক সংঘর্ষে উত্তাল রূপ নেয় হাবড়া থানার কুমড়ো কাশিপুর বাঘাডাঙা এলাকায়। তৃণমূলের হামলায় গুরুতর আহত হন বিজেপি কর্মী ভাস্কর মালাকার। প্রথমে তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় হাবড়া হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া  হয়। পরে পরিস্থিতি দেখে বারাসাত হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয় তাকে। বিজেপির অভিযোগ, শনিবার সকালে বাঘাডাঙা এলাকায় প্রচারে গেলে তৃণমূল কর্মীরা বাধা দেয় সেই ঘটনা সম্পর্কে হাবড়া থানায় লিখিত অভিযোগও জানানো হয়। ফের রবিবার প্রচারে গেলে বিজেপি কর্মীদের লোহার রড ইট দিয়ে মারধর করা হয়। যাতে আহত হয় বিজেপির চারজন কর্মী সমর্থক।

বউবাজার বাঁচাতে সতর্ক মেট্রোরেল কর্তৃপক্ষ, নিযুক্ত বিশেষজ্ঞ কমিটি

যদিও তৃণমূলের দাবি, বিজেপি কর্মীরাই দুষ্কৃতীদের নিয়ে বাঘা ডাঙ্গা গ্রামে প্রচারে এসেছিল। ওরাই  তৃনমূলের কর্মীদের মারধর করে। মূলত, বিহরাগতদের নিয়ে  আসতেই তৃণমূলের তরফে প্রতিবাদ ওঠে। যার জেরে দুই দলের কর্মীদের  মধ্য়ে সংঘর্ষ শুরু হয়। এদিকে বিজেপি বলছে,সিএএ নিয়ে মানুষকে ভুল বোঝাচ্ছে তৃণমূল সহ বিরোধী রাজনৈতিক কিছু দল। তাই বাড়ি বাড়ি গিয়ে মানুষদের বোঝানোর কাজ করছিল তারা। এই সময়ে প্রচারে বাধা দেয় তৃণমূল কর্মীরা। তাতেই সমস্য়ার সৃষ্টি হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে এলাকায় বিশাল পুলিশ বাহিনীর মোতায়েন করা হয়েছে। 

সারোগেসির নামে প্রতারণা, ৬ লক্ষ টাকা খোয়ালেন দম্পতি