বিজেপি সাফাই অভিযান মঞ্চের সমাবেশের আগেই বিজেপি- তে ভাঙন শুরু। রবিবার রাতেই বিজেপি এবং বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ছেড়ে তৃণমূলে যোগদান করল একাধিক সদস্যের।

রবিবার পুরুলিয়া শহরের ট্যাক্সি স্ট্যান্ড- এ বিজেপি- র বিক্ষুব্ধ গোষ্ঠীর 'বিজেপি সাফাই অভিযান মঞ্চের' সমাবেশের আগেই রবিবার গভীর রাতে ঝালদা শহর তৃণমূল কার্যালয়ে যুব তৃণমূল কংগ্রেসের নেতৃত্বে এগারো নম্বর ওয়ার্ড- এর ঝালদা শহর বিজেপি- র সাধারণ সম্পাদক উদয় পরমাণিক ও দু' নম্বর ওয়ার্ড-এর ঝালদা শহর বিজেপি যুব মোর্চার সম্পাদক  অজয় রায়- সহ ৫০ জন বিভিন্ন  দল  থেকে এ দিন যুব তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করেন।

তাদের হাতে দলীয় পতাকা তুলে দেন কার্যকরী সভাপতি প্রদীপ কর্মকার ও শহর সভাপতি দেবাশীষ সেন। যুব তৃণমূল কংগ্রেস কনভেনার রাজেশ রায় ও প্রদীপ কর্মকার জানান, 'নতুন এই কর্মীদের যোগদানে পুরুলিয়ায় দল আরও শক্তিশালী হলো। কিছু ভুল বোঝাবুঝির কারণে এখানে বিজেপি একটু জায়গা পাচ্ছিলো, কিন্তু আজ অনেকে ভুল বুঝতে পেরে দিদির উন্নয়নকে দেখে ফিরে আসছেন।'

সামনেই পুরসভা নির্বাচন। তার আগে পুরুলিয়ার গেরুয়া শিবিরে গোষ্ঠীদ্বন্দ প্রকাশ্যে। দলের পুরনো দিনের একাধিক নেতা কর্মীরা ম্লে তৈরি করেছেন বিজেপি সাফাই অভিযান মঞ্চ। আজ এই মঞ্চের সভা। সেই মঞ্চ থেকেই দল ছাড়ার ঘোষণা করতে পারেন জেলার অনেক নেতা, কর্মী। তার আগে পুরুলিযা থেকে নির্বাচিত বিজেপি সাংসদ জ্যাতির্ময় সিং মাহাতোর মুখোশ খুলতে চান বলে জানান  সাফাই অভিযান মঞ্চের নেতা নির্মল কেশরী।