চাকদহে জলে ডুবে ছাত্র মৃত্যুর ঘটনায় চাঞ্চল্য। প্রেমিকার সাথে ঘনিষ্ঠতা আছে সন্দেহে পরিকল্পনা করে কলেজ ছাত্র ছেলেকে খুন করার অভিযোগ উঠলো তারই এক সহপাঠীর বিরুদ্ধে।অভিযোগ,শুক্রবার দুপুরে শুভঞ্জন কে ভাগিরিথিতে স্নান করতে যাওয়ার জন্য রাজি করায় দেবাঞ্জন। সেখানেই জলে ডুবে মৃত্যু হয় শুভঞ্জন এর।

আরও পড়ুন, নন্দীগ্রামে বিজেপি-র মিছিলে লাঠিচার্জ, হুমকি দিয়ে ফিরলেন দিলীপ, দেখুন ভিডিও

সূত্রের খবর,নদীয়ার কল্যানির বি ব্লকের বাসিন্দা শুভঞ্জন দাস চাকদহ কলেজের কমার্সের প্রথম বর্ষের ছাত্র।অভিযোগ,সেই কলেজেরই ওপর এক ছাত্র দেবাঞ্জন সরকারের সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে ওই কলেজেরই এক ছাত্রীর সঙ্গে।অভিযোগ,এক সঙ্গে পড়াশোনা করার সুবাদে দেবাঞ্জনের প্রেমিকার সাথে কথা বলত শুভঞ্জন। অভিযোগ,সেই নিয়ে সম্প্রতি শুভঞ্জনকে সন্দেহ করতে শুরু করে দেবাঞ্জন। অভিযোগ,শুক্রবার দুপুরে শুভঞ্জন কে ভাগিরিথিতে স্নান করতে যাওয়ার জন্য রাজি করায় দেবাঞ্জন। অভিযোগ,এর পর কলেজের আরও তিন বান্ধবীকে সাথে নিয়ে দেবাঞ্জন ও শুভঞ্জন চাকদহ রানীনগর ঘাটে যায় স্নান করতে। অভিযোগ,সেখানেই জলে ডুবে মৃত্যু হয় শুভঞ্জন এর।

আরও পড়ুন, ঘরে ঢুকতেই হামলা, মায়ের সামনে 'খুন' অধ্য়াপক ছেলে

শুক্রবার দুপুর থেকে তল্লাশি চালিয়ে শনিবার দুপুরে রানীনগর ঘাট থেকেই শুভঞ্জন এর দেহ উদ্ধার হয়।মৃতের পরিবারের অভিযোগ,প্রেমিকার সাথে ঘনিষ্ঠতা বাড়ছে সন্দেহ করেই পরিকল্পনা করে শুভঞ্জন কে খুন করেছে দেবাঞ্জন।ঘটনায় চাকদহ থানায় মৃতের পরিবারের তরফে লিখিত অভিযোগ দায়ের হয়েছে।ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে চাকদহ থানার পুলিশ।অন্যদিকে ঘটনার পর থেকেই পলাতক অভিযুক্ত দেবাঞ্জন সরকার।তার খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে চাকদহ থানার পুলিশ।