Asianet News BanglaAsianet News Bangla

By Election- রাত পোহালেই ৪ কেন্দ্রে উপনির্বাচন, এক ঝলকে প্রার্থীরা

এই চার বিধানসভা কেন্দ্রে যাতে কোনও সমস্যা না হয় এবং নির্বাচন যাতে সুষ্ঠু, অবাধ এবং শান্তিপূর্ণ ভাবে হয় তা নির্বাচন কমিশনের কাছে একপ্রকার চ্যালেঞ্জের বিষয়। 

By election of 4 assembly constituency in Bengal tomorrow bmm
Author
Kolkata, First Published Oct 30, 2021, 12:17 AM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

শনিবার রাজ্যের চার বিধানসভা কেন্দ্রে উপনির্বাচন। দিনহাটা, শান্তিপুর, গোসাবা এবং খড়দহ কেন্দ্রে সকাল থেকে শুরু হবে ভোটগ্রহণ। আর তার জন্য শুক্রবার সকাল থেকেই এই কেন্দ্রগুলিতে শুরু হয়ে যায় প্রস্তুতি। অবশ্য এই চার বিধানসভা কেন্দ্রে যাতে কোনও সমস্যা না হয় এবং নির্বাচন যাতে সুষ্ঠু, অবাধ এবং শান্তিপূর্ণ ভাবে হয় তা নির্বাচন কমিশনের কাছে একপ্রকার চ্যালেঞ্জের বিষয়। 

চলতি মাসের শুরুর দিকেই প্রথমে কমিশনের তরফে বলা হয়েছিল, দিনহাটা, শান্তিপুর, গোসাবা (Gosaba by election) ও খড়দহ বিধানসভা কেন্দ্রে উপনির্বাচনকে সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার জন্য ২৭ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করা হবে। তার মধ্যে থাকবে BSF, CRPF, SSB  ও CISF। এরপরই সেই বাহিনীর সংখ্যা বাড়িয়ে করা হয় ৮০। তারপর ফের বাড়ানো হয় বাহিনীর সংখ্যা। এখন সেই সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৯২। এর মধ্যে দিনহাটায় (dinhata by election) থাকবে ২৭ কোম্পানি, শান্তিপুরে (Shantipur by Election) ২২ কোম্পানি, খড়দহে ২০ কোম্পানি ও গোসাবায় ২৩ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করছে কমিশন। কমিশন সূত্রে খবর, ১০০ শতাংশ বুথেই কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন থাকবে। একটি ভোটগ্রহণ কেন্দ্রে একটি বুথ থাকলে ৪ জন কেন্দ্রীয় জওয়ান থাকবেন। একটা ভোটগ্রহণ কেন্দ্রে ২ থেকে ৪টি বুথ থাকলে ৮ জন কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ান থাকবেন। আর ৫ থেকে ৮টি বুথ থাকলে ১৬ জন কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ান মোতায়েন থাকবে এবং ৯ বা তার বেশি বুথ থাকলে ২৪ জন কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ান রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। 

আরও পড়ুন- পুলিশের বৈঠকে অতিথি আসনে তৃণমূল নেতা, ক্ষোভে অনুষ্ঠান ছাড়েন বিজেপি নেতা

আরও পড়ুন- লক্ষ্য নতুন ভোর, শনিবারও গোয়ায় ঠাসা কর্মসূচি মমতার

একুশের বিধানসভা ভোটে দলের দুই সাংসদকে প্রার্থী করেছিল বিজেপি। দিনহাটায় প্রার্থী হয়েছিলেন নিশীথ প্রামাণিক। আর রানাঘাটের সাংসদ জগন্নাথ সরকারকে শান্তিপুরের প্রার্থী করেছিল বিজেপি। নির্বাচনে জয়ী হন তাঁরা দু'জনেই। কিন্তু, তারপরই সাংসদ পদ থেকে ইস্তফা না দিয়ে বিধায়ক পদ থেকে ইস্তফা দেন তাঁরা। তাই তাঁদের ছেড়ে দেওয়া দুই বিধানসভা কেন্দ্রে উপনির্বাচন হবে ৩০ অক্টোবর। আর এই দুই আসনে তৃণমূলের হয়ে লড়বেন উদয়ন গুহ ও ব্রজকিশোর গোস্বামী। শান্তিপুরে BJP-র প্রার্থী নিরঞ্জন বিশ্বাস ও দিনহাটাতে লড়বেন অশোক মণ্ডল ও বামফ্রন্ট প্রার্থী আব্দুর রউফ। আর শান্তিপুরে বামফ্রন্ট প্রার্থী সৌমেন মাহাতো এবং কংগ্রেস প্রার্থী রাজু পাল। 

আরও পড়ুন- বাড়ছে সংক্রমণ, মুর্শিদাবাদে ৩৫টি কনটেনমেন্ট জোন

এছাড়া বিধানসভা নির্বাচনে উত্তর ২৪ পরগনার খড়দহে জয়ী হয়েছিলেন তৃণমূল প্রার্থী কাজল সিনহা। কিন্তু, নির্বাচনের ফল ঘোষণা হওয়ার আগেই তাঁর মৃত্যু হয়। সেই কারণে এই কেন্দ্রে উপনির্বাচনের প্রয়োজন হয়ে পড়ে। আর এবার এই আসন থেকে তৃণমূলের হয়ে লড়াই করবেন শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়। বিজেপি প্রার্থী করেছে জয় সাহাকে। এখানে তৃণমূল কংগ্রেস সহানুভূতির জেরে অনেকটা এগিয়ে আছে। তাছাড়া আগে এখানে জিতেছিল তৃণমূল কংগ্রেস। এখানে বামফ্রন্ট প্রার্থী করেছে দেবজ্যোতি দাসকে। অন্যদিকে ভোটে জয়ী হওয়ার পর মৃত্যু হয় দক্ষিণ ২৪ পরগনার গোসাবার তৃণমূল বিধায়ক জয়ন্ত নস্করের। তাই গোসাবা কেন্দ্রেও উপনির্বাচন হবে ৩০ অক্টোবর। এই আসনের জন্য তৃণমূলের হয়ে লড়বেন সুব্রত মণ্ডল। আর গোসাবার বিজেপি প্রার্থী পলাশ রানা। বামফ্রন্ট প্রার্থী করেছে অনিলচন্দ্র মণ্ডলকে।

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios