Asianet News BanglaAsianet News Bangla

মুর্শিদাবাদ নির্বাচনে কেন্দ্রীয় বাহিনী, ওয়েব কাস্টিং ও মাইক্রো অবজারভারের নজরদারি

জঙ্গিপুর ও সামশেরগঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রে আজ সুষ্ঠুভাবে ভোট প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ করতে কড়া নিরাপত্তার ব্যবস্থা নির্বাচন কমিশনের। ৫৫ শতাংশ বুথের নিরাপত্তায় ওয়েব ক্যামেরার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

Central forces, webcasting and micro-observers monitor polls in Murshidabad bpsb
Author
Kolkata, First Published Sep 30, 2021, 11:50 AM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

মুর্শিদাবাদের (Murshidabad) জোড়া জঙ্গিপুর (Jangipur assembly constituency) ও সামশেরগঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রে (Samsherganj assembly constituency) আজ সুষ্ঠুভাবে ভোট প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ করতে কড়া নিরাপত্তার ব্যবস্থা নির্বাচন কমিশনের (Election Commission)। ৫৫ শতাংশ বুথের নিরাপত্তায় ওয়েব ক্যামেরার ব্যবস্থা করা হয়েছে। এর পাশাপাশি মাইক্রো অবজার্ভারদের নিয়োগ করা হয়েছে। ভিডিও ক্যামেরায় বাকি বুথগুলির ভোটপ্রক্রিয়া রেকর্ডিং করা হবে বলেই প্রশাসনের তরফে সাংবাদিকদের জানানো হয়। 

প্রসঙ্গত,ওই দুই বিধানসভা কেন্দ্রের বিভিন্ন জায়গায় কেন্দ্রীয় বাহিনী টহল দিতে শুরু করে এদিন সকাল থেকেই। সাধারণ ভোটাররা যাতে নির্ভয়ে ভোট দিতে পারেন তার জন্য জওয়ানরা স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলেন। করোনা বিধি থাকায় ভোটের দিন প্রার্থীরা সর্বোচ্চ দু’টি গাড়ি ব্যবহার করতে পারবেন বলে জানান জেলার রিটার্নিং অফিসার। 

জেলার এক উচ্চ প্রশাসনিক কর্তা বলেন,"ভোটাররা যাতে নির্ভয়ে ভোট দিতে পারেন তারজন্য সবরকম ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী ছাড়াও ক্যামেরার মাধ্যমেও নজরদারি চালানো হবে। পোলিং এজেন্ট, প্রার্থী, কাউন্টিং এজেন্টদের ভ্যাকসিনের দু’টি ডোজ নেওয়া বাধ্যতামূলক। জানা গিয়েছে, সামশেরগঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রে মোট ৩২৯টি পোলিং স্টেশনে ভোটগ্রহণ হচ্ছে। দু’লক্ষ ৩৭ হাজার ৭৫০ জন ভোটার রয়েছেন। শারীরিকভাবে অক্ষম ভোটারের সংখ্যা ১৫৮৫ জন। 

জঙ্গিপুর বিধানসভা কেন্দ্রে ৩৬৩টি পোলিং স্টেশন রয়েছে। এখানে দু’লক্ষ ৫৫ হাজার ৯৯৮ জন ভোটার রয়েছেন। ১৭৬৭ জন শারীরিকভাবে অক্ষম ভোটার রয়েছেন। দুই বিধানসভা কেন্দ্র সীমান্তবর্তী এলাকায় অবস্থিত। তাই সীমান্তেও নজরদারি বাড়ানো হয়েছে। দুই কেন্দ্রের একাধিক পয়েন্টে নাকা চেকিং রয়েছে। 

সামশেরগঞ্জে কংগ্রেসের সংগঠন প্রথম থেকেই শক্তিশালী ছিল। গত লোকসভা নির্বাচনেও এখানে তারা এগিয়ে রয়েছে। পরবর্তীকালে তাদের সংগঠনে ফাটল ধরে। অনেকেই শাসক শিবিরে যোগদান করেন। তবে এবার তাদের প্রার্থী জইদুর রহমান নিজের ব্যক্তিগত ইমেজের জন্য লড়াই দেওয়ার চেষ্টা করছেন। এলাকায় তিনি প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী হিসেবে পরিচিত। এলাকায় তাঁর যথেষ্ট গ্রহণযোগ্যতা রয়েছে। সবমিলিয়ে চাপা উত্তেজনা রয়েছে মুর্শিদাবাদের দুই বিধানসভা কেন্দ্রে।

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios