কৌশিক সেন, রায়গঞ্জ:  দাহ করেননি, সিবিআই তদন্তের আশায় দেহ মাটিতে পুঁতে রেখেছেন পরিবারের লোকেরা। উত্তর দিনাজপুরের ইটাহারে বিজেপি কর্মীর মৃত্যুর ঘটনায় তদন্ত নামল সিআইডি। শুক্রবার পুলিশের তদন্তকারী অফিসারের কাছে থেকে সবকিছু বুঝে নিলেন রাজ্য গোয়েন্দা সংস্থার আধিকারিকরা। তবে রাজ্য় সরকারের নির্দেশে খুশি নন নিহত বিজেপি কর্মীর মা। ছেলের মৃত্যুর সিবিআই তদন্তের দাবি তিনি অনড় এখনও।

আরও পড়ুন: আসানসোল পুরনিগমের ভুয়ো ছবি ভাইরাল, পুলিশের জালে অভিযুক্ত

ইটাহারে দুর্লভপুর পঞ্চায়েতের নন্দনগ্রামের বাসিন্দা ছিলেন বছর বাইশের অনুপ রায়। বিজেপি কর্মী হিসেবে পরিচিত ছিলেন এলাকায়। পরিবারের লোকের দাবি, ২ সেপ্টেম্বর সকালে একটি পুরনো মামলায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য অনুপকে তুলে নিয়ে যায় রায়গঞ্জ থানার পুলিশ। আর বাড়ি ফেরেননি তিনি। ঘটনার দিন রাতে বাড়ির কাছেই পাওয়া যায় রক্তাক্ত মৃতদেহ। ছেলের মৃত্যুসংবাদ পেয়ে রায়গঞ্জে বিজেপি কার্যালয়ে যান অনুপের মা। 

আরও পড়ুন: অর্থের বিনিময়ে পাশমার্ক, শিলিগুড়িতে প্রকাশ্যে এল অধ্য়াপকের নাম

গেরুয়াশিবিরের অভিযোগ, বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে দলের কর্মীকে বেধড়ক মারধর করে পুলিশ।  তারপর গুলি করে খুন করে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা। ঘটনার সিবিআই তদন্তের দাবিই শুধু নয়, ছেলের মৃত্যুতে রায়গঞ্জ থানায় কর্মরত পাঁচজন পুলিশ আধিকারিকের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগও দায়ের করেন নিহত বিজেপি কর্মীর মা। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে খুনের মামলা দায়ের করা হয়েছে। এমনকী, পরিবারের দাবি মেনে দ্বিতীয়বার দেহে ময়নাতদন্ত করেছে পুলিশ। শেষপর্যন্ত বিজেপি কর্মীর মৃত্যুতে সিআইডি তদন্তের নির্দেশ দেয় রাজ্য সরকার।