তৃণমূল পরিচালিত পঞ্চায়েত বা পুরসভার বিরুদ্ধে পক্ষপাতমূলক আচরণের অভিযোগ তুলতেন বিরোধীরা। এবার বিজেপি পরিচালিত পঞ্চায়েতের বিরুদ্ধেও একই অভিযোগ তুলে গ্রাম পঞ্চায়েত থেকেই পদত্যাগ করলেন কংগ্রেসের এক সদস্য। ঘটনাটি ঘটেছে নদিয়ার নাকাশিপাড়া থানার বেথুয়াডহরিতে। 

আরও পড়ুন- কাটমানিতে হ্রাস টানতে দরাজ মমতা, পঞ্চায়েত স্তরে জনপ্রতিনিধিদের একলাফে ভাতা বৃদ্ধি

পদত্যাগী ওই কংগ্রেস সদস্যের নাম প্রিয়া সাহা লাহা। এলাকায় রীতিমতো পোস্টার মেরে নিজের পদত্যাগের কথা জানিয়েছেন তিনি। মানুষকে পরিষেবা না দিতে পারার জন্য ক্ষমা চেয়ে বিজেপি পরিচালিত গ্রাম পঞ্চায়েতের দিকে অভিযোগের আঙুল  তুলেছেন প্রিয়াদেবী। তাঁর অভিযোগ, তিনি কংগ্রেসের টিকিটে জেতায় বিজেপি পরিচালিত পঞ্চায়েতের পক্ষ থেকে তাঁর এলাকায় কোনও কাজই করতে দেওয়া হচ্ছে না। 

আরও পড়ুন- একুশের মঞ্চে কাটমানির ড্যামেজ কন্ট্রোল, পাল্টা ব্ল্যাক মানি আন্দোলনের নির্দেশ মমতার

নদিয়ার নাকাশিপাড়া থানার বেথুয়াডহরি ১ নম্বর পঞ্চায়েতের সদস্য ছিলেন ওই কংগ্রেস সদস্য। তাঁর অভিযোগ, 'আমি কংগ্রেসের টিকিটে জিতেছিলাম। বার বার প্রধান সাহেবের কাছে এলাকার বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজের জন্য দরবার করেছি। কিন্তু কোনও কাজই মঞ্জুর করা হয়নি। এলাকার মানুষ পরিষেবা পাওয়ার আশায় আমাকে নির্বাচিত করেছেন। সেই পরিষেবাই যখন দিতে পারছি না, তখন পদে থেকে লাভ কী?' মঙ্গলবারই স্থানীয় বিডিও অফিসে গিয়ে পদত্যাগপত্র দিয়ে এসেছেন তিনি। 

বিজেপি শিবিরের অবশ্য দাবি, প্রিয়াদেবী উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে এই অভিযোগ করছেন। গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধানকে নিনি নানা ভাবে হেনস্থা করার চেষ্টা করেছেন বলেও অভিযোগ। পঞ্চায়েতের চব্বিশজন সদস্যকেই সমানভাবে কাজ দেওয়া হয় বলে দাবি বিজেপি শিবিরের। এমন দাবি করলেও যেভাবে পোস্টার লাগিয়ে বিজেপি পরিচালিত পঞ্চায়েতের বিরুদ্ধে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ তুলে পদ ছেড়েছেন প্রিয়াদেবী, তাতে বেশ অস্বস্তিতে গেরুয়া শিবির। মঙ্গলবার সকাল থেকেই এলাকায় ওই পোস্টার দেখতে পেয়ে ভিড় জমান স্থানীয় বাসিন্দারা।