দীপক দাস, শিলিগুড়ি- গোর্খাল্য়ান্ড ইস্য়ুতে আলোচনা চেয়ে রাজ্যকে চিঠি পাঠিয়েছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। আলোচনায় থাকতে বলা হয়েছে স্বরাষ্ট্রসচিব, জিটিএ সচিব, দার্জিলিঙের জেলাশাসক এবং গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার সভাপতিকে। প্রত্যেককে আলাদা করে চিঠি পাঠানো হয়েছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফে। ২০১৭ সালে আন্দোলনের পর ফের জোরাল হল গোর্খাল্যান্ড ইস্যু। এই অবস্থায় মুখ খুললেন দার্জিলং জেলা সিপিএম।

আরও পড়ুন-নৌ-সেনায় শক্তিবৃদ্ধি ভারতের, মিশাইল এবং ট্রর্পেডো দুই ভাবে হামলা চালাতে সক্ষম'SMART'

গোর্খাল্যান্ড প্রসঙ্গে কেন্দ্রের পাঠানো চিঠি নিয়ে সিপিএমের জেলা সম্পাদক জীবেশ সরকার বলেন, ''ভোটের আগে গিমিক দেখানোর মতো নয়, আমরা চাই পাহাড়ে স্থায়ী রাজনৈতিক সমাধান। আর তা হল সংবিধান স্বীকৃত ও সর্বসম্মত সর্বোচ্চ স্বশাসন''। সোমবার শিলিগুড়িতে সিপিএমের দলীয় কার্যালয়ে অনীল বিশ্বাস ভবনে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে একথা বলেন জীবেশ সরকার।

আরও পড়ুন-বন দফতরের গোপন অভিযান, হাতির দাঁত সহ শিলিগুড়িতে গ্রেফতার মহিলা

প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালে আন্দোলনের পর একুশের বিধানসভা ভোটের আগে ফের জোরাল হল গোর্খাল্যান্ড ইস্য়ু। ২০১৯-এর লোকসভা নির্বাচনে দার্জিলিং থেকে বিজেপির টিকিটে জয়ী হয়ে সংসদে যান রাজু বিস্তা। তাঁর নেতৃত্বে নতুন করে গোর্খাল্যান্ডের দাবি আরও প্রবল হল। এই অবস্থায় বিজেপির বিরুদ্ধে বাংলা ভাগের চক্রান্তের অভিযোগ করেছে বিরোধীরা। পাহাড়ে স্থায়ী সমাধান করে স্বশাসনের পক্ষে সওয়াল করেছে দার্জিলিং জেলা সিপিএম।