নাম গোপালচন্দ্র মাইতি। পূর্ব মেদিনীপুরের জেলা তৃণমূলের কংগ্রেসের সহ সভাপতি তিনি। কিন্তু কাটমানির গুঁতোয় শাসক দলের এই জেলা স্তরের শীর্ষ নেতাই হয়ে গেলেন 'চোরা গোপাল'!

আরও পড়ুন- কাটমানিতে ৫ লক্ষ, মন্ত্রী রেজ্জাক মোল্লার ছেলের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের

ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব মেদিনীপুর জেলার নন্দকুমার থানার সুলোচনা গ্রামে। অভিযুক্ত তৃণমূল নেতা গোপাল মাইতি আগে পূর্ব মেদিনীপুর জেলা ফরওযার্ড ব্লকের  সভাপতি ছিলেন। পরে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দেন তিনি। এ দিন সকালে গ্রামে তাঁকেই 'চোরা গোপাল' বলে চিহ্নিত করে ব্যানার ঝোলানো হয়। সেখানে অভিযোগ করা হয়েছে, গরিব এবং যুবকদের কাছ থেকে চাকরি দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে এবং কৃষক ভাতা পাইয়ে দেওয়ার নাম করে তিনি প্রায় কোটি টাকা কাটমানি আদায় করেছেন। 

আরও পড়ুন- কাটমানি ফেরতের দাবিতে তৃণমূল নেতার বাড়ি ঘেরাও, পুলিশকেই বোমা, দেখুন ভিডিও

গোপালবাবু বর্তমানে তমলুক- ঘাটাল সেন্ট্রাল কো- অপারেটিভ ব্যাঙ্কের চেয়ারম্যান পদে রয়েছেন। এছাড়াও জেলার সমবায় সেলেরও চেয়ারম্যান। এছাড়াও বাবলপুর সমবায় ব্যাঙ্কেরও গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব রয়েছেন তিনি। অভিযোগ এই ব্যাঙ্কেই গরিব কৃষকদের টাকা আত্মসাৎ করেছেন তিনি। এই সমস্ত টাকাই ফেরত দেওয়ার দাবি জানানো হয়েছে ওই ব্যানারে। সচেতন নাগরিক সমিতির নামে ওই ব্যানার পড়েছে এলাকায়। 

এ দিন সকাল থেকে ওই ব্যানার চোখে পড়তেই চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। গোপালবাবু অবশ্য সমস্ত অভিযোগই অস্বীকার করেছেন। তবে কারা তাঁর বিরুদ্ধে এমন প্রচার করেছে, সে বিষয়ে কিছু বলেননি তিনি।