এই মুহুর্তে দক্ষিণ-পশ্চিম বঙ্গোপসাগরের উপকূল থেকে মাত্র ১১০ কিলোমিটার দূরত্বে রয়েছে ঘূর্ণিঝড় বুলবুল। মনে করা হচ্ছে যত এটি  উত্তর পূর্ব দিকে এগোবে তত একটু একটু করে শক্তি ক্ষয় হবে। আজ রাতে সুন্দরবনে আঘাত হানার আশঙ্কা রয়েছে বুলবুলের। যখন আঘাত করবে তখন গতি থাকবে ১২০ থেকে ১৩৫ কিমি। কলকাতা থেকে ২১৫ কিমি দূরে রয়েছে বুলবুল। ঘন্টায় ১৫ কিমি বেগে এগিয়ে আসছে শক্তিশালী এই ঘূর্ণিঝড়। উপকূলের জেলা গুলোতে জলোচ্ছাস ২ মিটার পর্যন্ত আসবে। সন্ধ্যে বেলায় ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টি হবে দুই ২৪ পরগনা সহ পূর্ব মেদিনীপুর এ। কলকাতাতে ও সন্ধ্যে থেকে বৃষ্টির পরিমান বাড়বে, সঙ্গে ঝোড়ো ৭০ থেকে ৮০ কিমি প্রতি ঘন্টায় বইবে ঝোড় হাওয়া।

দেখে নিন- বাড়ছে বুলবুলের দাপট, ইছামতীতে ডুবছে ভাসমান রেস্তোরাঁ

শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হয়েছে বুলবুল। এখন সাগরদ্বীপ থেকে আর মাত্র ১১০ কিলোমিটার দূরে রয়েছে শক্তিশালী এই ঘূর্ণিঝড়। যে কোনও মুহূর্তে তীব্র বেগে সমুদ্র উপকূলে আছড়ে পড়তে পারে শক্তিশালী বুলবুল। স্থলভাগে আছড়ে পড়ার সময় তার গতিবেগ ঘন্টায় ১২০ থেকে ১৩৫ কিলোমিটার থাকবে বলে অুমান করা হচ্ছে। গতি বারিয়ে ক্রমশ ওড়িশা ও পশ্চিমবঙ্গের দিকে ধেয়ে আসছে বুলবুল। ওড়িশার পারাদ্বীপ থেকে আর মাত্র ১২৫ কিলোমিটার দূরে রয়েছে বুলবুল। বাংলাদেশ খেপুপারা থেকে ২৯০ কিলোমিটার দূরত্বে এটি।

আরও পড়ুন- আছড়ে পড়তে চলেছে বুলবুল, নাছোড় পর্যটকদের ভিড় সরাতে হিমশিম প্রশাসন

বঙ্গোপসাগরে ঘনীভূত নিম্নচাপের সৃষ্টির ফলে ঘূর্ণিঝড় বুলবুল কয়েক মুহূর্তের মধ্যেই আছড়ে পড়তে চলেছে পশ্চিমবঙ্গের উপকূল এলাকায়। পূর্ব মেদিনীপুরের দীঘা মন্দারমনি তাজপুর সহ উপকূল এলাকায় ইতিমধ্যে পৌঁছে গিয়েছে জাতীয় বিপর্যয় মোকাবেলা দল। নদীয়ার হরিণঘাটা থেকে ২৬ জনের একটি এনডিআরএফ টিম সমুদ্র সৈকত এলাকায় পর্যটকদের সতর্ক থাকার নির্দেশ দিচ্ছেন জাতীয় বিপর্যয় মোকাবেলা টিম। ঘূর্ণিঝড় 'বুলবুল' বিষয়ে নবান্ন-এ কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে। কন্ট্রোল রুমের ফোন নম্বর ১০৭০, ২২১৪৩৫২৬।