প্রতিদিন হাজার হাজার যাত্রী নিয়ে কাজ করেন তাঁরা। ফলে তাঁদের মধ্যে করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি যথেষ্ট বেশি। এই অভিযোগ জানিয়ে গণ পরিবহন কর্মীদের কোভিড টিকাকরণের দাবি তুলল উত্তর দিনাজপুর বাস মিনিবাস ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন।  

বাসকর্মীরা প্রতিনিয়ত বিভিন্ন যাত্রীদের নিয়ে চলাফেরা করেন। বাসগুলিতে সেভাবে সামাজিক দূরত্ব বিধি মেনে চলা সম্ভব হয় না। আর সেকারনেই গণ পরিবহন কর্মীদের করোনা আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা অনেক বেশি বলে দাবি অ্যাসোসিয়েশনের। সেই ঝুঁকি থেকেই তাঁদের করোনা টিকাকরণের দাবি তুলেছেন উত্তর দিনাজপুর জেলার বিভিন্ন যানবাহনের মালিকপক্ষ। 

মঙ্গলবার উত্তর দিনাজপুর বাস মিনিবাস ওনার্স ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে জেলাশাসকের কাছে টিকাকরণের আবেদন জানানো হবে বলে খবর। সংস্থার সাধারণ সম্পাদক প্লাবন প্রামানিক জানিয়েছেন, এই দাবি অত্যন্ত ন্যায্য। কারণ প্রতিদিন উত্তর দিনাজপুর জেলার রায়গঞ্জ, কালিয়াগঞ্জ, ইসলামপুর বাসস্ট্যান্ড থেকে শয়ে শয়ে বাস মিনিবাস ও অন্যান্য যানবাহন যাতায়াত করে। যাত্রী পরিষেবার জন্য বালুরঘাট,  মালদা, ও শিলিগুড়িতে যায় বিভিন্ন যানবাহন।

এই যাত্রী পরিষেবার সাথে যুক্ত থাকেন জেলার কয়েকশো পরিবহন কর্মী। বাস চালক থেকে কন্ডাকটর, খালাসি কিংবা বাসকর্মী ও মালিকেরা সরাসরি এই যাত্রী পরিষেবার সাথে যুক্ত থাকেন। পেশার তাগিদেই জেলা ও ভিন জেলার মানুষেরা প্রতিদিনই পরিষেবার কারনে এই পরিবহন কর্মীদের সংস্পর্শে আসেন। ফলে করোনা সংক্রমণের আশঙ্কা থেকেই যায় পরিবহন কর্মীদের মধ্যে। 

এবার করোনার দ্বিতীয় ঢেউ যেভাবে এরাজ্যের সাথে সাথে উত্তর দিনাজপুর জেলাতে আছড়ে পড়েছে তাতে যেকোনও মুহুর্তে বাস সহ অন্যান্য গণ পরিবহন কর্মীরা করোনা রোগে আক্রান্ত হয়ে যেতে পারেন। সেকারনেই বাসকর্মী থেকে অন্যান্য গণ পরিবহন কর্মীদের খুব দ্রুত কোভিড টিকাকরণের প্রয়োজন। সোমবার সেই দাবিই তুলল উত্তর দিনাজপুর বাস মিনিবাস ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন। 

অ্যাসোসিয়েশনের সাধারন সম্পাদক প্লাবন প্রামানিক বলেন, এতদিন কোভিড টিকার ঘাটতি ছিল উত্তর দিনাজপুর জেলায়। তাই অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে কোনও আবেদন করা হয়নি। কিন্তু পরিস্থিতি ক্রমশ জটিল হচ্ছে। এইসব বাসকর্মীদের অবিলম্বে কোভিড টিকাকরণের প্রয়োজন। তাই মঙ্গলবার উত্তর দিনাজপুরের জেলাশাসক অরবিন্দ মীনার কাছে জেলার সমস্ত বাসকর্মীদের টিকাকরণের জন্য আবেদন জানানো হবে।