তীব্রতা কম থাকায় অনুভূত হয়নি সেভাবে। যদিও বড়দিনের আগে জলপাইগুড়িতে আশঙ্কার বার্তা নিয়ে এল ভূমিকম্প। যার  জেরে খুশির মেজাজেও তাল কাটে সোমবার সন্ধ্যায়। 

এদিন রাত ৮টা ৭ মিনিটে কম্পন অনুভূত হয় জলপাইগুড়িতে।  রিখটার স্কেলে কম্পনের তীব্রতা ছিল ৩.২। মাত্র কয়েক সেকেন্ড স্থায়ী হয়েছিল কম্পন। তাই সেভাবে মানুষকে  নাড়া দিতে পারেনি। যদিও ভূমিকম্পের কথা শুনেই চাঞ্চল্য তৈর‌ি হয়েছে জলপাইগুড়ির  বিভিন্ন এলাকায়। 

'ব্যাঁকা', 'ন্যাকা' বলে আক্রমণ, মমতার ভাষা প্রয়োগ নিয়ে প্রশ্ন, দেখুন ভিডিও

এলাকাবাসীদের মতে, একবার ভূমিকম্প হওয়ার পর আফটার শক হওয়াটা স্বাভাবিক। অনেক ক্ষেত্রে ভূমিকম্পের কিছু ঘণ্টার মধ্য়েই নতুন করে কম্পন অনুভূত হয়। অনেকবার  আবার ৪৮ ঘণ্টার মধ্য়েও ফিরে আসে ভূমিকম্প। সেক্ষত্রে প্রথমবার রিখটার স্কেলে তীব্রতার থেকে আরও কম হয় কম্পনের মাত্রা। তবুও চিন্তা কমছে না জলপাইগুড়ি সহ উত্তরবঙ্গে।

সেতুর নীচে আটকে আস্ত একটি কার্গো বিমান, অবাক পরিস্থিতি দুর্গাপুরে

এলাকার বাসিন্দারা জানান, বড়দিনের আগে এদিন সন্ধ্যায় শহরে চলছিল শেষ মুহুর্তের প্রস্তুতি।  উৎসবের আলোয় সেজে উঠেছিল রাস্তা। ঝলমল করছিল চার্চ। তার মধ্য়েই ছন্দপতন। তাল কাটল ভূমিকম্প। কম্পন অনুভূত হতেই চারিদিকে হইচই পড়ে যায়। অনেক মানুষ বাড়ি ছেড়ে রাস্তায় নেমে আসেন। তবে তীব্রতা কম থাকায়  কোনও বাড়িতে ফাটল বা ক্ষয়ক্ষতির সম্ভাবনা তৈরি  হয়নি।