মঙ্গলবার ভোরে তখনও কুয়াশার চাদরে ঢেকে গোটা এলাকা। তখনও তেমনভাবে মানুষ বাইরে বের হতে শুরু করেনি। কিন্তু যারা বেরিয়েছেন তাদের  জিনিসটি দেখেই হয়ে গেল চক্ষু চড়কগাছ। দুর্গাপুরে ২ নম্বর জাতীয় সড়কের উপর ডিএসপি মেনগেট এলাকায় সেতুর নীচে আটকে রয়েছে আস্ত একটি কার্গো বিমান।

আরও পড়ুন : ষোড়শী ছাত্রীর বুকে অ্যাসিড, অভিযোগের তির গেল প্রিন্সিপালের দিকে

আকাশে দাপিয়ে বেড়ানো কার্গো বিমানকে এভাবে বেকায়দায় আটকে পড়ে থাকতে দেখে অবাক হন সকলেই। আর ফাঁদে পড়া বিমানটিকে দেখতে ততক্ষণে রীতিমত মানুষের ঢল নেমেছে দুর্গাপুরে। 

 

 

জানা যাচ্ছে ভারতীয় ডাকবিভাগের পরিত্যক্ত এই কার্গো বিমানটিকে কলকাতা থেকে রাজস্থানের জয়পুরে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। সোমবার রাতে জাতীয় সড়কের আসানসোলগামী লেন ধরে যাওয়ার সময় মেন গেটের কাছে এসে উড়ালপুলের নীচ দিয়ে যাওয়া যাবে কিনা তা নিয়ে ধন্দে পড়ে যান ট্রেলার চালক। এরপর সার্ভিস রোড ধরতেই বাধে বিপত্তি। উড়ালপুলের নীচে আটকে পড়ে বিমানবহনকারী বাইশ চাকার ট্রেলারটি। দুর্গাপুরে ২ নম্বর জাতীয় সড়কের উপর সিএসপি মেনগেট এলাকায় সেতুর উচ্চতা কমা থাকায় ঘটে এই বিপত্তি। 

আরও পড়ুন : কংগ্রেস শাসিত রাজ্যে সরকারি ভাবে সিএএ-এনআরসি নয়, রাহুলের প্রশংসা করে আবদার প্রশান্তের

চাকার হাওয়া বের করে ওভারব্রিজের নীচে আটকে পড়া কার্গো বিমানটিকে বের করে আনার চেষ্টা চালান হচ্ছে। এদিকে সকাল বেলায় বিনা টিকিটে বিমান দেখতে ভিড় জমাতে শুরু করে বহু মানুষ। পরিস্থিতির জেরে ব্যাহত হয় যানচলাচল। 

 

 

সোমবার রাতে বিমানটিকে দমদম থেকে বের করার সময়েও প্রায় একই সমস্যা তৈরি হয়েছিল। যশোর রোডে বাঁক নেওয়ার সময়ে আটকে যায় বিমানটি। যার জেরে গভীর রাতে তৈরি হয় যানজট। সোজাপথে বেশ কিছুটা যাওয়ার পর ফের দুর্গাপুরে ফাঁদে পড়ল বিমানটি।