জমি থেকে বেগুন তুলতে গিয়ে খুন হয়ে গেলেন এক চাষী! ক্ষেত থেকে তাঁর গলাকাটা দেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে শিলিগুড়ি লাগোয়া ফাঁসিদেওয়া এলাকায়। আতঙ্কিত স্থানীয় বাসিন্দারা। খুনের কারণ নিয়ে ধন্দে পুলিশ।

মৃতের নাম বিনয় বসু। ফাঁসিদেওয়া এলাকার ভক্তিনগরের বাসিন্দা ছিলেন তিনি। বাড়ির কাছেই স্থানীয় গোয়ালটুলি মোড় এলাকায় জমি ছিল বিনয়ের। জমিতে বেগুন চাষ করেছিলেন তিনি। ফলনও বেশ ভালোই হয়েছিল। পরিবারের লোকেরা জানিয়েছে, বুধবার দুপুরে জমি থেকে বেগুন তুলে গিয়েছিলেন বিনয়। কিন্তু আর বাড়ি ফেরেননি। শেষপর্যন্ত সন্ধ্যা বেলায় জমিতে ওই কৃষকের গলাকাটা মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখেন স্থানীয় বাসিন্দারা। ঘটনাটি জানাজানি হতেই চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। খবর দেওয়া হয় থানায়। মৃতেদহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে পুলিশ। কিন্তু কেন খুন হয়ে গেলেন বেগুন চাষী বিনয় বসু? কারাই বা খুন করল তাঁকে? তা কিন্তু স্পষ্ট নয়। স্থানীয় বাসিন্দাদের একাংশের অনুমান, পারিবারিক বিবাদের কারণেই এমন ঘটনা ঘটেছে। তদন্তে নেমেছে পুলিশ।  

আরও পড়ুন: সোনারপুরে দিনে দুপুরে শ্যুট আউট, গুলিবিদ্ধ হয়ে মৃত্যু ব্যবসায়ীর

উল্লেখ্য, কয়েক মাস আগে মধ্যরাতে শিলিগুড়ির ভক্তিনগর থানায় গিয়ে স্ত্রীকে খুন করার কথা জানায় এক যুবক।  শহরের মহাকাপল্লি এলাকার একটি ভাড়াবাড়িতে ওই মহিলার রক্তাক্ত দেহ উদ্ধারও করে পুলিশ। ঘটনাটি জানাজানি হতেই উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। অভিযুক্তের শাস্তির দাবিতে পুলিশের গাড়ি ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখান স্থানীয় বাসিন্দারা। সেই ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই ফের খুনের ঘটনা ঘটল শহরে।