কথায় বলে বিনা মেঘে ব্রজপাত। কিন্তু সত্যি সত্যি যে তেমনটা ঘটবে, তা কে জানত! লকডাউনের মাঝে বাড়ির বাইরে বেরিয়ে বেঘোরে প্রাণ গেল চারজনের। হাসপাতালের মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন আরও একজন। মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে বীরভূমের মল্লারপুরে। 

আরও পড়ুন: পুরসভায় জীবাণুনাশক সুড়ঙ্গে অনুব্রতের ছবি, বিতর্ক তুঙ্গে রামপুরহাটে

জানা গিয়েছে, বৃহস্পতিবার বিকেলে ক্রিকেট খেলা চলছিল মল্লারপুরের বিলাসপুর গ্রামের মাঠে।  মাঠ থেকে কিছুটা দূরে বটগাছে বসে খেলা দেখছিলেন পাঁচজন। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, বিকেলের দিকে আবহাওয়া ভালোই ছিল। ঝড়-বৃষ্টির লেশমাত্র ছিল না। আচমকাই ব্রজপাত হয়। তাতে গুরুতর জখম হন পাঁচজন। তাঁদের প্রথমে নিয়ে যাওয়া হয় মল্লারপুর ব্লক প্রাথমিক হাসপাতালে। শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় সকলেই রামপুরহাট মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেন চিকিৎসকরা। কিন্তু শেষরক্ষা হয়নি। রাস্তাতেই মারা যান চারজন।  আরও একজন ভর্তি হাসপাতালে, শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক। 

আরও পড়ুন: লকডাউনে লাটে উঠেছে ব্যবসা, বিপুল আর্থিক ক্ষতির মুখে বাজি ব্যবসায়ীরা

এদিকে লকডাউনের বাজারে গ্রামের মাঠে কেন ক্রিকেট খেলা চলছিল, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন অনেকেই। পুলিশের অবশ্য দাবি, মাঠে ক্রিকেট খেলা হচ্ছিল না। বিকেলে গ্রামের আর সকলের মতোই বাড়ি ফিরছিলেন ওই পাঁচজন।  ফেরার পথে আকাশে মেঘ দেখে তাঁরা বটগাছে নিচে দাঁড়িয়ে পড়েন। তখনই ঘটে দুর্ঘটনা। কিন্তু বাড়ির বাইরে বেরিয়েছিলেন কেন? তাহলে কি বিলাসপুর গ্রামে লকডাউন মানা হচ্ছে না? বজ্রপাতে মৃত্যুতে প্রশ্ন কিন্তু থেকেই যাচ্ছে?