শিলিগুড়ির পুর-প্রশাসকের দায়িত্ব দেওয়া হল গৌতম দেবকে।পুর প্রশাসক মণ্ডলীতে গৌতম দেব ছাড়াও থাকছেন রঞ্জন সরকার, বিবেক বৈদ ও অলোক চক্রবর্তী। বৃহস্পতিবারই নতুন বিজ্ঞপ্তি দিয়ে প্রশাসকমণ্ডলীর এই সদস্যদের নাম ঘোষণা করা হয়েছে। 

আরও পড়ুন - 'অক্সিজেন প্ল্য়ান্ট বসছে এবার রাজ্যের হাসপাতালগুলিতে', কোভিড চিকিৎসায় বড় ঘোষণা মমতার

গৌতম দেব জানান,শুক্রবার থেকে তিনি দায়িত্বভার বুঝে নেবেন। আপাতত কোভিড পরিস্থিতির সঙ্গে মোকাবিলা করাই তাঁর প্রথম লক্ষ্য। পাশাপাশি যেসব প্রাথমিক সমস্যা রয়েছে সেগুলি যাতে মেটানো যায় সেদিকে লক্ষ্য রাখবেন তিনি। গত পাঁচবছর ধরে শিলিগুড়ির মেয়র ছিলেন অশোক ভট্টাচার্য এবং প্রায় এক বছর প্রশাসকের দায়িত্বও সামলেছেন তিনি। তাই তাঁর সঙ্গেও কথা বলবেন গৌতম দেব। কোথায় কি খামতি রয়েছে এবং কোথায় কি প্রয়োজন সেই বিষয়ে খোঁজ-খবর নেবেন।
 

এছাড়াও গৌতম দেব জানান,সমস্ত ওয়ার্ড কো-অর্ডিনেটরদের সঙ্গে আলোচনায় বসবেন তিনি। কোভিড পরিস্থিতিতে বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার সঙ্গে আলোচনা করে কিভাবে এর মোকাবিলা করা যায় এবং শহরবাসীর পাশে থাকা যায় সেই বিষয়েও খোঁজ-খবর নেবেন তিনি। শুক্রবার শিলিগুড়ি পুরনিগমে যাওয়ার কথা রয়েছে গৌতম দেবের। 

আরও পড়ুন- BJP-র তারকা প্রার্থীদের নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য,তথাগত-র ডাক পড়ল এবার দিল্লিতে

নির্বাচনে আর দাঁড়াচ্ছেন না অশোক ভট্টাচার্য। ২০২১ এর বিধানসভা নির্বাচনে শিলিগুড়িতে তৃতীয় স্থান পেয়েছেন তিনি। তারপর থেকেই কিছুটা হলেও নিরাশ রয়েছেন। তবে বিধানসভা নির্বাচনের আগেই তিনি জানিয়েছিলেন যে আর কোনও নির্বাচনে তিনি দাঁড়াচ্ছেন না। সামনেই পুরনিগম ভোট। সেখানেও তিনি দাঁড়াবেন না। রবিবার ভোটের ফলাফল প্রকাশের দিন গণনাকেন্দ্র ছেড়ে বেরিয়ে গিয়েছিলেন তিনি। সেইভাবে কারও সাথে কথাও বলেননি।

বৃহস্পতিবার অনিল বিশ্বাস ভবনে তিনি জানান,তিনি দলের নন প্লেইং ক্যাপ্টেন হিসেবেই কাজ করে যাবেন। আপাতত কর্মীদের উদ্বুদ্ধ করা এবং তাদের মনোবল বাড়ানোই তাঁর কাজ।হারের কারণ পর্যালোচনা করা হচ্ছে। তিনি নিজেও বিভিন্ন বুথে যাচ্ছেন। পাশাপাশি জানান, এখন আর তিনি কোনও নির্বাচনে দাঁড়াচ্ছেন না এবং পুরভোটে নতুন কোনও মুখ দেখা যাবে।