ঝটিকা সফরে বিশেষ ট্রেনে করে নবাব নগরী মুর্শিদাবাদে এলেন পূর্ব রেলের জেনারেল ম্যানেজার মনোজ যোশী। বৃহস্পতিবার রেলের এই পদস্থ কর্তাকে হাতের কাছে পেয়ে জেলার মানুষ তাকে যেমন সম্মানিত করেন তার  পাশাপাশি বেশ কয়েকটি দাবি আদায়ের জন্য তাঁর হাতে চিঠিও তুলে দেন।

আরও পড়ুন, 'বাংলায় আর রবীন্দ্র সঙ্গীত শোনা যায় না-আজ শুধুই বোমার শব্দ'-আক্ষেপ রাজনাথের  

 

 জেলার মানুষের কাছ থেকে উষ্ণ অভ্যারথনা পেয়ে বেশ খুশি শ্রী যোশি।পূর্ব নির্ধারিত সময় সূচি মেনে রেল কর্তার বিশেষ ট্রেনটি মুর্শিদাবাদ স্টেশনে গিয়ে থামে । সেখানে রেলের অন্যান্য কর্তাদের সঙ্গে একটি বৈঠক করেন পূর্ব রেলের জেনারেল ম্যানেজার শ্রী মনোজ যোশী। তাঁর এই পরিদর্শনের প্রেক্ষিতে  স্টেশনকে ঢেলে সাজান হয়। সেখান থেকে তিনি প্রথমে সুবর্ণমৃগী স্টেশন পরিদর্শন করে চলে আসেন ঐতিহাসিক মুর্শিদাবাদ স্টেশন। আগে থেকেই তার জন্য ওই স্টেশানে অপেক্ষা করছিলেন মুর্শিদাবাদ রেলওয়ে প্যাসেঞ্জার অ্যাসোসিয়েশানের কর্তা ও সদস্যগণ। রেলের কর্তা তারা মুর্শিদাবাদ রেলের পরিদর্শনে আসার জন্য ফুল ও ফুলের মালা দিয়ে বরন করে নেন।একটি সংগঠনের কাছ থেকে এই রকম অভিনন্দন পাওয়ায় কার্যত তাকে বেশ ফুরফুরে দেখায়। 

আরও পড়ুন, 'শুধু লুঠ করেছে তৃণমূল', শেষবেলায় আশ মিটিয়ে মমতাকে আক্রমণ যোগীর 

 

পরবর্তীতে সংগঠনের পক্ষ থেকে জেলার রেলের উন্নয়নের পাশাপাশি ঐতিহাসিক স্টেশনটিতে যাতে যাত্রী সাচ্ছন্দ দেওয়া যায় তার ব্যবস্থা করার আবেদন রাখা হয়। অবশ্য এর আগেই রেল বোর্ড মুর্শিদাবাদ স্টেশান কে ঐতিহাসিক স্টেশানের মর্যাদা দিয়েছে । কিন্তু সেই ভাবে এখনও তার উন্নতি হয় নি ।প্যাসেঞ্জার অ্যাসোসিয়েশানের দাবি গুলি খতিয়ে দেখা হবে জানা শ্রী যোশী । এই ব্যাপারে সংগঠনের সম্পাদক  এ আর খান বলেন , 'আমাদের কথা উনি মন দিয়ে শুনেছেন ।এবং উনি কথা দিয়েছেন বিষয় গুলি খতিয়ে দেখে পরবর্তী পদক্ষেপ করবেন।'