ভোটের দিন সকালে এজেন্টকে বুথে বসাতে গিয়ে নিগৃহীত হলেন ঘাটালের বিজেপি প্রার্থী ভারতী ঘোষ। তৃণমূলের মহিলা বাহিনীর ধাক্কায় মাটিতে পড়ে গিয়ে কেঁদে ফেললেন প্রাক্তন আইপিএস অফিসার।

ঘাটালের অন্তর্গত কেশপুর বিধানসভা এলাকার চাঁদখালিতে একটি বুথে বিজেপি এজেন্টকে বসতে দেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ। খবর পেয়ে সেখানে পৌঁছন ভারতী। এজেন্টকে নিয়ে তিনি বুথে ঢুকতে গেলে তৃণমূলের মহিলা সমর্থকরা ভারতীকে ঘিরে ধরে বাধা দিতে শুরু করেন। রীতিমতো ধাক্কা দেওয়া হয় ভারতীকে। তাঁর সঙ্গে কেন্দ্রীয় বাহিনীর নিরাপ্ত্তারক্ষীরা থাকলেও মহিলাদের সেভাবে বাধা দিতে পারেননি তাঁরা। 

ধস্তাধস্তির জেরে একসময় পড়ে যান ভারতী। পায়ে আঘাত পেয়ে কেঁদে ফেলেন তিনি। ভারতীর অভিযোগ, স্থানীয় পুলিশ ইচ্ছাকৃতভাবেই মহিলা পুলিশ মোতায়েন করেনি। শেষ পর্যন্ত রণে ভঙ্গ দিয়ে এজেন্টকে না বসিয়েই ফিরে যেতে বাধ্য হন ভারতী ঘোষ।
ভারতীর অভিযোগ, নির্বাচন কমিশনও তাঁর অভিযোগে কোনও সাড়া দিচ্ছে না। ভারতীর দাবি, ঘাটালের একাধিক জায়গায় তৃণমূল বিজেপি এজেন্টদের বাধা দিচ্ছে. একটি বুথ থেকে দুই বিজেপি এজেন্টকে অপহরণ করা হয়েছে বলেও অভিযোগ ভারতীর।

তৃণমূল কর্মীদের অভিযোগ, ভারতীর লোকজন তাঁদের প্রথমে মেরেছে। সেই কারণেই তাঁরা পাল্টা প্রতিরোধ করেন. প্রকাশ্যেই তাঁরা বলেন, বিজেপি-র এজেন্টকে তাঁরা বুথে বসতে দেবেন না। 

গত কয়েকদিন ধরেই পর পর বিতর্কে জড়িয়েছেন ঘাটালের বিজেপি প্রার্থী। এই ঘাটালেই তৃণমূল কর্মীদেের কুকুরের মতো পিটিয়ে মারার হুমকি দিতে শোনা গিয়েছে তাঁকে। ভোটের আগে তাঁর গাড়ি থেকে হিসেব বহির্ভূত টাকা উদ্ধারের অভিযোগ করেছে পুলিশ। এ দিন অবশ্য সম্পূর্ণ উল্টো ছবি. ক'দিন আগে যে কেশপুর তাঁর দাপট দেখেছিল।সেখানেই অসহায় হয়ে কাঁদলেন তিনি।