বুলেট ট্রেন কবে ছুটবে তা ভবিষ্যতই বলবে। কিন্তু আগামী চার বছরের মধ্যেই মাত্র বারো ঘণ্টার মধ্যে ট্রেনে হাওড়া থেকে দিল্লি পৌঁছে যেতে পারেন আপনি। একইভাবে মুম্বাই এবং দিল্লির যাত্রাপথের সময় কমে হতে পারে দশ ঘণ্টা। 

বর্তমানে হাওড়া থেকে দিল্লি যেতে রাজধানীতে ন্যূনতম সময় লাগে অন্তত সাড়ে সতেরো ঘণ্টা। রাজধানী এখন সর্বোচ্চ ঘণ্টায় ১৩০ কিলোমিটার গতিতে ছুটতে পারে। কিন্তু গোটা দেশেই ট্রেনের গড় গতিবেগ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে রেল মন্ত্রক। 

দ্বিতীয়বার প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পরে প্রত্যেকটি মন্ত্রককেই একশো দিনের মধ্যে নির্দিষ্ট কিছু প্রস্তাব জমা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিলেন নরেন্দ্র মোদী। সেই নির্দেশ মেনেই রেলের পরিষেবা উন্নয়নে যে প্রস্তাবগুলি রেল মন্ত্রক গ্রহণ করেছে, তার মধ্যে ট্রেনের গড় গতিবেগ বৃদ্ধি অন্যতম। জানা গিয়েছে আগামী চার বছরের মধ্যে রেলের পরিকাঠামো উন্নয়নে মোট ১৩,৫০০ কোটি টাকা খরচ করার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। 

জানা গিয়েছে ট্রেনের গতিবেগ বাড়াতে রেলপথে প্রহরী বিহীন লেভেল ক্রসিং তুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এছাড়াও ক্রসিংগুলিতে সেতু তৈরির পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। এর জন্য প্রায় পঞ্চাশ হাজার কোটি টাকা খরচ করার পরিকল্পনা নিয়েছে রেল মন্ত্রক। এছাড়াও উন্নত সিগনালিং ব্যবস্থা চালু করতে পাইলট প্রজেক্টও চালু করতে চায় রেল মন্ত্রক।