মিঠু সাহা, শিলিগুড়ি-সোমবার থেকে রাতভর বৃষ্টি উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন জেলায়। তার জেরে জলবন্দি অবস্থায় শিলিগুড়ি পুরসভার বিভিন্ন ওয়ার্ড। ঘরের মধ্য়ে জল ঢুকে যাওয়ায় কার্যত রান্না-খাওয়া বন্ধ রেখেছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। শুধু তাই নয়, শিলিগুড়ির গুরুত্বপূর্ণ বাজার চম্পাশারি রেগুলেটেড মার্কেটেও জল জমে যাওয়ায় দুর্ভোগের শিকার হয়েছেন ব্যবসায়ীরা।

জানাগেছে, এদিন ভোর পর্যন্ত টানা বৃষ্টি হয় শিলিগুড়ির বিস্তীর্ণ এলাকায়। তার জেরে পুরসভার বেশ কয়েকটি ওয়ার্ডে জল জমে যায়। ৪০, ৪৬, ৪৭ নম্বর ওয়ার্ডে জল ঢুকে যাওয়ার কারনে সমস্যায় পড়েছেন  স্থানীয় বাসিন্দারা। ঘরের মধ্য়ে জল ঢুকে যাওয়ায় তাঁদের রান্না খাওয়া বন্ধ হয়ে গিয়েছে বলে দাবি। প্রশাসনের বিরুদ্ধে উদাসীনতার অভিযোগ তুলেছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। শিলিগুড়ির চম্পাশারি, জ্য়োতিনগর, মিলনপল্লি সহ বিভিন্ন এলাকায় জল জমে যাওয়ার দুর্ভোগের শিকার হয়েছেন সাধারণ মানুষ। ৪২ নম্বর ওয়ার্ডের     ভূপেন্দ্রনগর এলাকায় বৃষ্টির জেরে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে কাঁচাবাড়ি। ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে হাইড্রেনেও।

অন্যদিকে, চম্পাশারির রেগুলেটেড মার্কেট শিলিগুড়ির একটি গুরুত্বপূর্ণ বাজার। এদিন রাতভর বৃষ্টির কারনে সমস্য়ায় পড়েছেন ব্যবসায়ীরা। সাপ্তাহিক লকডাউনের পরের দিনই দুর্ভোগের শিকার হয়েছেন তাঁরা। বাজারের ভিতর জল জমে যাওয়ায় পণ্য় সামগ্রী ওঠানামাতেও সমস্য়ায় হচ্ছে বলে দাবি ব্যবসায়ীদের। পাশাপাশি, এলাকা জলমগ্ন হওয়ায় ব্যাহত সাধারণ মানুষের স্বাভাবিক জীবনযাত্রা। তার জেরে ক্ষতির আশঙ্কা করছেন ব্যবসায়ীরা।

প্রতিবারই বৃষ্টির কারনে জল জমে যাওয়ায় শিলিগুড়ির বিভিন্ন ওয়ার্ডে। করোনা আবহের কারনে নিকাশি নালা ঠিকমতো পরিষ্কার না হওয়ায় জল জমে থাকার পরিমান অনেকটাই বেড়ে গিয়েছে। এই অবস্থায় শিলিগুড়ি পুরসভার বিরুদ্ধে উদাসীনতার অভিযোগ করেছেন স্থানীয় বাসিন্দারা।