Asianet News BanglaAsianet News Bangla

'আমাকে ব্যবহার করে কেউ সম্পত্তি বাড়াক চাই না', দুর্নীতি নিয়ে বড় কথা শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়ের

দুর্নীতি আর হিসেববহির্ভূত সম্পত্তি বর্তমান রাজ্য রাজনীতিতে একটি বড় ও গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু। এদিন তা আবার মনে করালেন তৃণমূল কংগ্রেসের বিধায়ক শোভনদেব চট্টোপাধ্য়ায়। ঘোলার মহিষপোত এলাকায় দলীয় কর্মসূচিতে যোগ দিয়ে শোভনদেব চট্টোপাধ্যায় বলেন তিনি যতদিন খরদহে থাকবেন ততদিন তাঁকে কোনও উপহার দেওয়া যাবে না। তিনি কারও কোনও উপহার গ্রহণ করবেন না

I don't want anyone to use me to increase their wealth, said Sovandev Chatterjee bsm
Author
First Published Sep 12, 2022, 3:09 PM IST

দুর্নীতি আর হিসেববহির্ভূত সম্পত্তি বর্তমান রাজ্য রাজনীতিতে একটি বড় ও গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু। এদিন তা আবার মনে করালেন তৃণমূল কংগ্রেসের বিধায়ক শোভনদেব চট্টোপাধ্য়ায়। ঘোলার মহিষপোত এলাকায় দলীয় কর্মসূচিতে যোগ দিয়ে শোভনদেব চট্টোপাধ্যায় বলেন তিনি যতদিন খরদহে থাকবেন ততদিন তাঁকে কোনও উপহার দেওয়া যাবে না। তিনি কারও কোনও উপহার গ্রহণ করবেন না। তিনি বলেন 'আমি চাই না আমার গায়ে কেউ কালো দাগ ছিটিয়ে দিক। আমাকে ব্যবহার করে কেউ তার নিজের সম্পদ বাড়াক তাও চাই না।'


এদিন শোভনদেব চট্টোপাধ্যায় বলেন শুধু ভোট দিলেই দায়িত্ব শেষ হয় না নাগরিকদের। যাকে জিতিয়েছেন তাঁকে খেয়াল রাখতে হবে। সেই ব্যক্তি বিধায়ক বা সাংসদ হয়ে যাওয়ার পরে কেমন আছেন। শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়ের কথায়, 'আরও বলছি দয়া করে আপনা আমাদের খেয়াল রাখুন। আপনারা আমাদের কাজ খেয়াল রাখুন। খেয়াল রাখুন, আমরা কাজ করছি না নিজের সম্পদ বাড়ানোর চেষ্টা করছি। আমাকে বিধায়ক বা মন্ত্রী আমার বাবা মা করেনি। দল করেছে আর মানুষ করেছে। আর সেই কারণেই আমাদের কাজ খেয়াল রাখতে হবে তাদের।' 

শোভনদেব বলেন, তিনি দীর্ঘ ধরেই রাজনীতি করছেন।  এখনই নিজের গায়ে কালি লাগাতে দেননি। আগামী দিনেও তাঁর সেই প্রচেষ্টা জারি থাকবে। শোভনদেব চট্টোপাধ্যায় বলেন দলের তিনি সবথেকে সিনিয়র এমএলএ। ১৯৯৬ সালের আগে থেকেই সংসদীয় রাজনীতি রয়েছে। তিরিশ বছরের বেশি হয়ে গেল সংসদীয় রাজনীতি। তিনি আরও বলেন একটা সময় সুজন চক্রবর্তীকে হারিয়ে বারুইপুর থেকে বিাধায়ক হয়েছিলেন। সেই সময় কাজের জন্য প্রায়ই বারুইপুরে যেতে হত। তখন কিন্তু স্থানীয়  বাসিন্দাদের বাড়িতে খেতেন। কিন্তু এখন আর সেই কাজ তিনি করতে চান না। 

শোভনদেব চট্টোপাধ্যায় বলেন একজন বাস কন্ডাকটার থেকে প্রচুর সম্পদের মালিক হয়ে গেল।- এটা কী করে সম্ভব। তাই স্থানীয় বাসিন্দাদের এই বিষয়ে সচেতন হতে আবেদন জানিয়েছেন তিনি। তিনি বলেন স্থানীয় বা সাধারণ মানুষ যদি এই বিষয় সচেতন হয় তাহলে এজাতীয় দুর্নীতি রোখা যাবে। তিনি বলেন,সাধারণ মানুষ সচেতন না হলে অনেকেই তার প্রাপ্য বা অধিকার থেকে বঞ্চিত হবে। দেশ ধ্বংস হয়ে যাবে। শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়ের কথায় একজন মানুষের হিবেস বহির্ভূত সম্পত্তি হচ্ছে দেখলেই সাধারণ মানুষকে সচেতন হতে হবে। এদিন তৃণমূল কংগ্রেস নেতা বলেন, বারুইপুরের জন্য তিনি অনেক উন্নয়নমূলক কাজ করেছে। আগামী দিনে খরদহের জন্য তেমন কাজ করতে চান বলেও জানিয়েছেন তিনি। 

'এজেন্সি এজেন্সির কাজ করবে', গার্ডেনরিচ নিয়ে ১৮০ ডিগ্রি ঘুরে গিয়ে মন্তব্য ফিরহাদের

পার্থ-অর্পিতা থেকে গার্ডেনরিচ ED-র হাতে বাজেয়াপ্ত ১০০ কোটি, জানুন কী হয় এই রাশি রাশি টাকায়
চাকরি থেকে টাকা - সবই পাবেন ১০ সেপ্টেম্বরের পর থেকে, বুধের কৃপা থাকবে ৫ রাশির ওপর

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios