দীর্ঘদিন ছুটি না পাওয়া থেকে মানসিক অবসাদ। সেই মানসিক অবসাদই ভয়াবহ আকার ধারণ করল আইটিবিপি-তে। যেখানে ছুটি না পেয়ে পাঁচ সহকর্মীকে গুলি করে আত্মঘাতী হলেন নদিয়ার নাকাশিপাড়ার বাসিন্দা মাসুদুল রহমান। ছেলের খবর বাড়িতে পৌঁছতেই শোকের ছায়া নামল পরিবারে।

মর্মান্তিক ঘটনার সাক্ষী থাকল ছত্তিশগড়ের নারায়ণপুর জেলার বস্তার। কোনও জঙ্গি হামলা নয়, নিজের ৫ সহকর্মীকেই গুলি করে মারলেন আইটিবিপি-র ৪৫ নম্বর ব্যাটালিয়ন-এর জওয়ান। তবে সহকর্মীদের মেরে নিজে পালিয়ে যাননি তিনি। কাজ শেষ হতেই মাত্র ৩৩ বছর বয়সেই আত্মঘাতী হয়েছেন তিনিও।  

সূত্রের খবর,নদীয়ার নাকাশিপাড়া থানার বিল কুমারী গ্রামের বাসিন্দা মাসুদুল রহমান ২০০৮ সালে আইটিবিপি- তে যোগ দেন। বর্তমানে ছত্তিশগড়ের নারায়ণপুর জেলার বস্তারে কর্মরত ছিলেন তিনি। অভিযোগ,দীর্ঘ এক বছর কোনও ছুটি না মেলায় মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন মাসুদুল। বার বার বাড়ির লোকের কাছে সেই আক্ষেপ করেছেন। 

অভিযোগ,বুধবার ছুটি নিয়ে তার সহকর্মীর সাথে বচসা হয়,তারপরই সহকর্মীদের গুলি করে নিজেও আত্মঘাতী হন তিনি। পরিবার সূত্রে খবর,১০ দিন আগে ফোনে মায়ের সাথে কথা হয়েছিল মাসুদুলের। সেই সময় পরিবারের তরফে বিয়ের জন্য তাঁকে বাড়ি আসার কথা জানিয়েছিল মা। কিন্তু আবেদন জানিয়েও ছুটি পাচ্ছে না বলে বাড়িতে জানিয়েছিল মাসুদুল। আর তারপরই বুধবার বাড়িতে তাঁর মৃত্যুসংবাদ পৌঁছয়। তবে সে কেন আরও ৫জনকে হত্যা করল, সেই বিষয়ে কিছু বলতে পারেনি পরিবার। ঘটনায় গোটা গ্রামে নেমে এসেছে শোকের ছায়া।